ধামরাইয়ে চলন্ত বাসের ভেতর গার্মেন্টস কর্মী গণধর্ষণের শিকার : আটক-৫

ধামরাইয়ে চলন্ত বাসের ভেতর গার্মেন্টস কর্মী গণধর্ষণের শিকার : আটক-৫

ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি : ঢাকা- আরিচা মহাসড়কের ধামরাইয়ে কচমচ এলাকায় বাসের ভেতর গভীর রাতে  মাজেদা বেগম (২৪) নামের গার্মেন্টস কর্মী গণধর্ষনের শিকার হয়েছে। মহাসড়কে ডিউটিরত পুলিশ যাত্রীসেবা পরিবহনের একটি বাসসহ ৫ জনকে আটক করতে সক্ষম হয়েছে। এ ধর্ষণের শিকার হওয়ায় গার্মেন্টস কর্মী বাকরুদ্ধ হয়ে পড়েছে। সে কারো সাথে কোন কথা বলতেছে না। শুধু চোখের পানি ফেলে যাচ্ছে। গার্মেন্টস কর্মী বর্তমানে পুলিশ হেফাজতে রয়েছে।

আটককৃতরা হলো,  চুয়াডাংগা জেলারসদরের কোর্টপাড়া গ্রামের মৃত শফি মল্লিকের ছেলে বাবু মল্লিক (২৪),ময়মনসিং জেলা ফুলবাড়ি থানার দেওখোলা গ্রামের মৃত- জসিম উদ্দিনের ছেলে আব্দুল আজিজ(২৫), নিলর্ফামারী জেলার ডিমরান থানার সরকার বাড়ীর গ্রামের মহন লালের ছেলে  বলরাম (২০),
ঢাকা জেলার ধামরাই উপজেলা গাওয়াইল গ্রামের  মোঃ কালু মিয়ার ছেলে মোঃ সোহেল রানা(২০),একই উপজেলার কেলিয়া গ্রামের মৃত- রাজু সরদারের ছেলে মকবুল হোসেন(৩৮),

ধামরাই থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ রিজাউল হক জানান, ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের পাশে ধামরাইয়ের শ্রীরামপুর এলাকায় গ্রাফিক্স ফ্যাক্টরির (গার্মেন্টস)’এ অপারেটর হিসেবে কর্মরত মাজেদা বেগম (২৪)নামের এক কর্মী রাত ৯টায় অফিস ছুটি হওয়ার পর ইসলামপুর এলাকায় বাসায় যাওয়ার জন্য যাত্রী সেবা পরিবহনের একটি বাসে( যার নং –ঢাকা মেট্রো-জ-১৪-০৮১৫) উঠে। পরে ওই গার্মেন্টস কর্মীকে না নামিয়ে নানা তালবাহানা করে সময় কাটিয়ে দেয়। পরে রাত গভীর হলে  কচমচ এলাকায় গাড়ী থামিয়ে বাসের ভেতরে পেছনের ছিটে নিয়ে বাবু মল্লিক (২৪) ও আব্দুল আজিজ(২৫) তাকে ধর্ষণ করে। এসময় অন্যরা ও ধষর্ণের প্রস্তুতি নিচ্ছিল। ওই বাসের ভেতরে ধর্ষিতার ডাক চিৎিকার করলে রাস্তায় টহলরত ধামরাই থানার এসআই ভজন রায় টের পেয়ে তাদেরকে দাওয়া করে আটক করে। এব্যাপারে ধামরাই থানায় মামলা হয়েছে বলে জানান তিনি।