ধর্মঘটের জেরে প্যারিসের ৩৯১ মাইলজুড়ে জ্যাম

ধর্মঘটের জেরে প্যারিসের ৩৯১ মাইলজুড়ে জ্যাম

পেনশন ব্যবস্থা সংস্কারের দাবিতে বিক্ষোভ-ধর্মঘট চলছে ফ্রান্সে। যার জেরে অচল হয়ে আছে রাজধানী প্যারিস।


সোমবার (১৬ ডিসেম্বর) প্যারিসে ৩৯১ মাইল রাস্তাজুড়ে জ্যাম সৃষ্টি হয়েছে বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম।

সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়, ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ পরিকল্পিত পেনশন ব্যবস্থা সংস্কার ও চাকরির বয়সসীমা বাড়ানোর প্রতিবাদে ধর্মঘট ও বিক্ষোভ শুরু করেন দেশটির লাখ লাখ মানুষ। তাদের সঙ্গে একাত্মতা জানিয়ে ধর্মঘট পালন করছে পরিবহন শ্রমিকরাও। তাদের দাবি, বেতনসহ কাজের সুযোগ-সুবিধা বাড়ানো।

এ ধর্মঘট-বিক্ষোভের ১২তম দিনে প্যারিসের ৩৯১ মাইল রাস্তাজুড়ে জ্যাম সৃষ্টি হয়। এতে ভোগান্তিতে সাধারণ মানুষ।

এদিকে ধর্মঘটের জেরে বন্ধ রাখা হয়েছে ট্রেন, বাতিল করতে হয়েছে দেশটির অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক বহু ফ্লাইটও। এছাড়া নিরাপত্তা ঝুঁকি থাকায় ঐতিহ্যবাহী আইফেল টাওয়ারসহ ফ্রান্সের জনপ্রিয় পর্যটন স্থানগুলো দর্শনার্থীদের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। চলমান বিক্ষোভে পুলিশের সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের সংঘর্ষের ঘটনাও ঘটেছে।

কতদিন এ আন্দোলন চলবে, সে ব্যাপারে স্পষ্ট কোনো ধারণা না পেলেও নিজেদের দাবি আদায়ের আগ পর্যন্ত এ আন্দোলন অব্যাহত থাকবে বলেই জানিয়েছে ট্রেড ইউনিয়ন নেতারা। 

তবে বড় দিনকে (২৫ ডিসেম্বর) সামনে রেখে শিগগিরই সরকারপক্ষ তাদের সঙ্গে বৈঠক করবে বলেও জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম।

১৯৯৫ সালে ফ্রান্সের তৎকালীন সরকার পেনশন ব্যবস্থা সংস্কারের উদ্যোগ নেওয়ায় দেশজুড়ে তিন সপ্তাহব্যাপী বিক্ষোভ-ধর্মঘট হয়েছিল।

বর্তমানে ৪০টি ভিন্ন ধরনের অবসরের বয়সসীমা ও পেনশন ব্যবস্থা রয়েছে। ম্যাক্রোঁর মতে, এটি অন্যায্য ও ব্যয়বহুল। তিনি একটিই ব্যবস্থা নেওয়ার পরিকল্পনা করছেন। যেখানে পেনশনপ্রাপ্ত সবাই সমান সুবিধা পাবেন।