দেবীগঞ্জে গাছ কাটা চক্রের হাতে সাবাড় হচ্ছে সড়কের গাছ!

দেবীগঞ্জে গাছ কাটা চক্রের হাতে সাবাড় হচ্ছে সড়কের গাছ!

পঞ্চগড় প্রতিনিধি : পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জে সংঘবদ্ধ একটি গাছকাটা চক্রের হাতে দিনে দিনে উধাও হচ্ছে দুটি সড়কের ১২ কিলোমিটার এলাকার গাছ। অভিযোগ রয়েছে গত ৬ থেকে ৭ বছর ধরে এই চক্র প্রায় কয়েক কোটি টাকার সরকারি গাছ কেটে সাবাড় করেছে। এই চক্রের সাথে কাঠ ব্যবসায়ী, স’মিল মালিক ও  স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ প্রভাবশালীরা জড়িত রয়েছে বলে জানান স্থানীয়রা। গাছ কাটা এই সিন্ডিকেটের কবলে পড়ে দু’পাশে সারি সারি গাছে পূর্ণ সড়ক দুটি এখন গাছ শূন্য হওয়ার পথে। পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ উপজেলার সুন্দরদিঘী ইউনিয়নের ফুলবাড়ি বাজার থেকে দক্ষিণে সলিমনগর পর্যন্ত ৬ কিলোমিটার পর্যন্ত এবং পশ্চিমে বিনতের মোড় হয়ে বাহাদুর বাজার পর্যন্ত ৬ কিলোমিটার সড়কটি এখন প্রায় গাছ শূন্য। অথচ গত ৬ থেকে ৭ বছর আগেও সড়ক দুটির দ’ুপাশে ছিল বিভিন্ন প্রজাতির সারি সারি গাছ। বেশিরভাগ ছিল কড়ই ও আকাশমনি গাছ। সম্প্রতি ঝড়ো বৃষ্টির সময় ওই চক্র আবারও গাছ কাটলে স্থানীয়রা ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেন। গাছ বিক্রির সময় হাতেনাতে আটক করেন স্থানীয়রা। এ সময় গাছ সিন্ডিকেটের সাথে স্থানীয়দের হাতাহাতিও     

হয়। তাদের হামলায় সুন্দরদিঘি ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য সিদ্দিকুর রহমান আহত হন। পরে তাকে দেবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে চিকিৎসা দেয়া হয়। খবার পেয়ে ৪১টি গাছের লগ এলজিইডি জব্দ করে। স্থানীয়দের অভিযোগ, ওই সিন্ডিকেটে ঝড়ে পড়া গাছ কাটার নাম করে অন্তত ৪০ থেকে ৫০টি গাছ কেটে স্থানীয় একটি স’মিলের সামনে  ফেলে রাখে। এ নিয়ে ওই এলাকায় বেশ চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে। সুন্দরদিঘি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পরেশ চন্দ্র সরকার জানান, আমি চেয়ারম্যান হওয়ার পর থেকে একটি গাছও অবৈধভাবে কাটা হয়েছে বলে আমার জানা নেই। এবার ঝড়ে ৫টি গাছ পড়েছিল রাস্তার ওপর। সেগুলো আমিই কাটার জন্য বলেছিলাম।
স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতরের দেবীগঞ্জ উপজেলা প্রকৌশলী  মোমিনুল ইসলাম বলেন, আমরা খবর পেয়ে ৪১টি গাছের লগ জব্দ করেছি। বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে অবহিত করা হয়েছে। পরবর্তী ব্যবস্থা তিনি নিবেন। দেবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রত্যয় হাসান জানান, সড়কের গাছ কাটার বিষয়ে অভিযোগ পেয়েছি। উপজেলা প্রকৌশলী গাছগুলো জব্দ করেছেন। অবৈধভাবে কেউ সড়কের গাছ কেটে থাকলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।