দীপা খন্দকারের ৪০ বছর পদার্পণে মৌ’র চমক!

দীপা খন্দকারের ৪০ বছর পদার্পণে মৌ’র চমক!

বিনোদন প্রতিবেদক : গেলো ২৮ নভেম্বর ছিলো জনপ্রিয় নাট্যাভিনেত্রী দীপা খন্দকারের জন্মদিন। জন্মদিন পেরিয়ে যাবার পর দীপা খন্দকার ২৮ নভেম্বর দিবাগত রাত ১২.২২ মিনিটে তার ফেসবুকের ওয়ালে একটি স্ট্যাটাস দেন। যা ছিলো  ও ধস ৪০ ঃড়ফধু .ণবং রিঃয ষড়ঃং ড়ভ ৎিরহশষবং.. অপঃঁধষষু ষড়ঃং ড়ভ বীঢ়বৎরবহপব ্ সধঃঁৎরঃু. যদি বলি জীবনের অর্ধেক কাটিয়ে দিলাম তবে ভুল হবে। কারন আমি কোনভাবেই আশা করিনা যে ৮০ বছর বাঁচবো।সেই হিসেবে জীবনের বেশীরভাগ সময় কাটিয়ে দিয়েছি। এই দীর্ঘ সময়ে আমাকে যারা এক বিন্দুও ভালবেসেছে , পাশে থেকেছে,পাশে রেখেছে, দয়া মায়া এমনকি যে একটু হিংসা বা ঘৃণা করেছে সবার প্রতি আমার কৃতজ্ঞতা। আপনারা/তোমরা/তোরা ছাড়া আমার জীবন পূর্ণ হতোনা। রাগ অভিমান কষ্ট কোনকিছুর জন্যই আর আমার অভিযোগ নাই।সব কিছু মিলিয়েই আজকের আমি।সময়ের প্রয়োজনে জীবনের প্রয়োজনে যা কিছু করেছি যা কিছু পেয়েছি যা পাওয়া উচিত ছিল কিন্তু পাইনি তার কোন কিছুর জন্যই আমার কোন কষ্ট লজ্জা বা গ্লানি কোন কিছুই নাই। এতো ভালোবাসা শুভেচ্ছা শুভ কামনা কয়জন পায়? র ধস ঢ়ৎড়ঁফ ড়ভ সু ষরভব ধহফ ৎবধষষু ঃযধহশভঁষ ঃড় অষষধয ধহফ ঃযধহশভঁষ ঃড় ুড়ঁ ধষষ....পাশে থাকবেন আর পাশে রাখবেন..’। দীপার এই স্ট্যাটাসে অনেক প্রিয় প্রিয় সহকর্মী এবং তার ভক্ত দর্শকেরা কমেন্টস করেছেন। দীপা বারবারই আবেগাপ্লুত হয়েছেন। তবে আরো অনেক অনেক বেশি আবেগাপ্লুত হয়েছেন দীপা খন্দকার গতকাল সন্ধ্যা থেকে গভীর রাত পর্যন্ত।

 কারণ গতকাল রাতে অভিনেত্রী তাহমিনা সুলতানা মৌ’র বাসায় দীপার চল্লিশে পদার্পণ উপলক্ষ্যে এক বিশেষ আয়োজন করা হয়েছিলো যার পুরো কৃতিত্বই ছিলো মৌ’র। অবশ্য দীপা খন্দকার জানতেনই না যে তাকে ঘিরে চমৎকার একটি আয়োজন অপেক্ষা করছিলো। একে একে যখন সব প্রিয় প্রিয় সহকর্মীরা মৌ’র বাসায় উপস্থিত হচ্ছিলেন, দীপার হাসি মুখে যেন আনন্দের প্রকাশ পাওয়া যাচ্ছিলো আরো বেশি। মৌ’র আহ্বানে দীপাকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাতে সন্ধ্যা থেকে গভীর রাত পর্যন্ত মৌ’র বাসায় উপস্থিত হয়েছিলেন সুবর্ণা মুস্তাফা-বদরুল আনাম সৌদ, ওয়াহিদা মল্লিক জলি, চিত্রলেখা গুহ, সাবেরী আলম, শাবনাজ, তানভীন সুইটি-রিপন, বিজরী বরকত উল্যাহ, মোশাররফ করিম, শোয়েব ইসলাম-মৌসুমী নাগ, শাহেদ-নাতাশা, মীর সাব্বির-চুমকি, বন্যা মির্জা-মানস, রুনা খান, নাঈম-নাদিয়া, তানভীর-জেনি, তুষ্টি, অনিমেষ আইচ-ভাবনা, নীলাঞ্জনা নীলা, নাট্যনির্দেশক রুলীন রহমান, আরিফ খান, চয়নিকা চৌধুরী, অমিতাভ আহমেদ রানা, শান্তা রহমান’সহ আরো অনেকে। দীপা’ জন্মদিনকে ঘিরে মৌ’র বাসায় যেন কাল তারকাদের এক মিলন মেলাই বসেছিলো। দীপা’র জন্মদিনকে ঘিরে হঠাৎ এমন আয়োজন প্রসঙ্গে মৌ বলেন,‘ সত্যি বলতে কী দীপা আপু আমার ভীষণ প্রিয় একজন মানুষ।

 আমি তাকে খুব পছন্দ করি, ভালোবাসি। তিনিও আমাকে খুউব ¯েœহ করেন। মূল কথা তিনি আমার পরিবারের একজন সদস্যের মতোই। শুধূ তিনি বললে ভুল হবে তার পরিবার মানেই আমার পরিবার, আমি তাই মনেকরি। তো দীপা আপু জন্মদিনের রাতে যখন তার চল্লিশে পদার্পণ নিয়ে একটি স্ট্যাটাস দিলেন, তখনই আমার মনে হলো যে তাকে একটা সারপ্রাইজ দেয়া যায়, সেই ভাবনা থেকেই মূলত এটি করা। একে একে পরিকল্পনা করে সবাইকেই দাওয়াত দেয়ার চেষ্টা করেছি। আমার আহ্বানে সাড়া দিয়ে দীপা আপুকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাতে বা ভালোবাসা জানাতে আমার বাসায় উপস্থিত হয়েছিলেন, এটাই আমার জন্য অনেক বড় পাওয়া। দীপা আপুর প্রতিও কৃতজ্ঞতা যে তিনি তার স্বামী শাহেদ ভাই’সহ তার দুই সন্তানকে সঙ্গে নিয়েই আমার বাসায় এসেছিলেন দীর্ঘ সময়ের জন্য।’ দীপা খন্দকার বলেন,‘ মৌ এতো কিছু করে ফেলবে এটা আমার ভাবনাতেও ছিলো না। আমার সহকর্মীরা আমায় এতো ভালোবাসেন তা নতুন করে জীবনের এই সময়ে এসে আবার উপলদ্ধি করলাম। সত্যি বলতে কী আমি এতোটাই খুশি হয়েছিলাম যে আমি ভাবতেই পারছিলামনা এতো আয়োজন সব আমাকে ঘিরেই ছিলো। মৌ এবং তার স্বামী মনি ভাইয়ের প্রতি শুধুই কৃতজ্ঞতা জানালেই এর শেষ হয়ে যায়না। আমি সত্যিই মুগ্ধ, অভিভূত। সবাই আমার জন্য, মৌ’র জন্য দোয়া করবেন যেন আমরা সারাটি জীবন একই পরিবারের হয়ে সবার সঙ্গে চলতে পারি।’
ছবি ঃ মোহসীন আহমেদ কাওছার