তুরস্ককে ১৫ খাতে বিনিয়োগের আহ্বান

তুরস্ককে ১৫ খাতে বিনিয়োগের আহ্বান

বাণিজ্য ও বিনিয়োগসহ ১৫টি গুরুত্বপূর্ণ খাতে বাংলাদেশে বিনিয়োগের জন্য তুরস্ককে আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ।


বুধবার (২০ নভেম্বর) তুরুস্ককে আঙ্কারায় অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ-তুরস্ক যৌথ অর্থনৈতিক কমিশন সভায় অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল এ আহ্বান জানান। যৌথ অর্থনৈতিক কমিশনে তুরস্কের সঙ্গে এটা পঞ্চম সভা। সভায় তুরস্কের স্পিকার মুস্তফা সেন্তোপকে বাংলাদেশের ১৫টি গুরুত্বপূর্ণ খাতের বিষয়ে উপস্থাপন করা হয়।

তিনদিনের বৈঠকে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে তুরস্ককে বাণিজ্য-বিণিয়োগ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি, আইসিটি, শিপ বিল্ডিং, শিল্প, কর্মসংস্থান, নৌপরিবহন, কৃষি, শিক্ষা, নগরায়ন, প্রাকৃতিক দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা, পর্যটন ও বিমান পরিবহন, জ্বালানি-বিদ্যুৎ, সংস্কৃতি-ট্যুরিজম, ডেভলপমেন্ট অ্যাসিসটেন্স, মানবসম্পদ উন্নয়ন, পাট-টেক্সটাইলসহ বিভিন্নখাতে বিনিয়োগের জন্য আহ্বান করা হয়।

এছাড়া এতদিন ধরে চলে আসা দু’দেশের অর্থনৈতিক সম্পর্ক পর্যালোচনার পাশাপাশি নতুন করে আর কি কি খাতে অর্থনৈতিক সহযোগিতা বাড়ানো যায় সেসব বিষয়ে আলোচনা হয়েছে।

সভায় তুরস্কের স্পিকার মুস্তফা সেন্তোপ বলেন, বাংলাদেশের সঙ্গে তুরস্কের সম্পর্ক অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। দুরত্ব অনেক হলেও দু’দেশের মধ্যে ধর্ম, সংস্কৃতিসহ রয়েছে অনেক ক্ষেত্রে সামঞ্জস্য। আশা করছি, এ সফরে অত্যন্ত ফলপ্রসু হবে। রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে বাংলাদেশ সারা বিশ্বে উদারতার মহান দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। আরাকানের এ মুসলিমদের ওপর যে অবিচার করা হয়েছে সেটি অত্যন্ত ন্যাক্কারজনক। তুরস্ক এ সমস্যা সমাধানে বাংলাদেশের পাশে রয়েছে।

এসময় অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) সচিব মনোয়ার আহমেদ উপস্থিত ছিলেন।