শনিবার রাজপথে থাকবে ১৪ দল

ড. কামাল ভাড়াটে নেতা : নাসিম

ড. কামাল ভাড়াটে নেতা : নাসিম

জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার আহ্বায়ক ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেনকে ‘ভাড়াটে নেতা’ বলে মন্তব্য করেছেন কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখপাত্র ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।  মঙ্গলবার দুপুরে বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে মহানগর ১৪ দলের এক প্রস্তুতি সভায় শেষে সাংবাদিকদের কাছে তিনি এ মন্তব্য করেন।

এ সময় আগামী শনিবার বিকাল তিনটায় মহানগর নাট্যমঞ্চে ১৪ দলের সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে জানিয়ে মোহাম্মদ নাসিম নেতাকর্মীদের রাজপথ দখলে রাখার আহ্বান জানান। আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য নাসিম বলেন, আগে খেলার সময় খেলোয়ার ভাড়া করা হতো। এখন দেখছি, ড. কামাল হোসেনের মতো নেতারাও ভাড়ায় যাচ্ছেন। তবে ভাড়াটে খেলোয়াড় দিয়ে জয় পাওয়া যায় না। কারণ, তাদের নিজেদেরই কোনো অস্তিত্ব নেই। তিনি বলেন, আমাদের সঙ্গে খেলবেন লেখেন। এতে কোনো সমস্যা নেই। কিন্তু অস্বিত্বহীন ভাড়াটে বর্ণচোরা খেলোয়াড়দের নিয়ে খেলে কোনো লাভ হবে না। কেননা, তাদের ওপর জনগণের আস্থা নেই। আপনাদের কর্মীদেরও আপনাদের ওপর আস্থা নেই। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন বানচালের চেষ্টা চলছে উল্লেখ করে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, সংবিধান অনুযায়ী যথাসময়ে নির্বাচন হবে। এতে যে কোনো দল অংশ নিতে পারবে। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনক ব্যাপার হলো, এ সব চেনা মুখগুলো গণতন্তের কথা বলে মাঠে নামলে দেশের মানুষের মধ্যে শঙ্কা তৈরি হয়। কারণ, তারা অতীতে নির্বাচন বিলম্বিত করার জন্য বারবার চেষ্টা করেছে। তিনি আরো বলেন, নির্বাচনে সেনা মোতানের দাবি তুলে সেনাবাহিনীকে উত্তেজিত করার চেষ্টা করা হচ্ছে। সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীইি যথেষ্ট। তারা নির্বাচনকালীন সময়ে নির্বাচন কমিশনের অধীনে কাজ করবে। ২০০১ সালের নির্বাচনে পরাজিত হওয়া আওয়ামী লীগের নেতা নাসিম বলেন, সেসময় একটি দলকে পরাজিত করতে চক্রান্ত করা হয়েছিল। সেনাবাহিনীকে ব্যবহার করে অতীতে গণতন্ত্রকে ধ্বংস করা হয়েছিল। এভাবে পৃথিবীর কোনো দেশে সেনাবাহিনীকে ব্যবহার করা হয় না। নেতাকর্মীদের রাজনৈতিক মাঠ দখলের আহ্বান জানিয়ে ১৪ দলের মুখপাত্র বলেন, বিভিন্ন ধরনের ষড়যন্ত্র-চক্রান্ত চলছে। এর বিরুদ্ধে সব সময় সজাগ থাকতে হবে। আগামী এক মাস সব কাজ বাদ দিয়ে এলাকায় প্রস্তুত থাকতে হবে, যাতে কোনো অপশক্তি মাঠে নামতে না পারে। কেউ যাতে নৈরাজ্য সৃষ্টি করতে না পারে সে জন্য রাজপথ আমাদের দখলে রাখতে হবে। ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও মহানগর ১৪ দলের নেতা শাহে আলম মুরাদের সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য রাখেন ওয়ার্কার্স পার্টির আবুল হোসেন, জাসদের মীর আখতার হোসেন প্রমুখ।