ঠাকুরগাঁওয়ে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ঝুঁকিপূর্র্ণ ভবনে পাঠদান

ঠাকুরগাঁওয়ে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ঝুঁকিপূর্র্ণ ভবনে পাঠদান

ঠাকুরগাঁও জেলা প্রতিনিধি: ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার চিলারং ইউনিয়নের মোলানী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে পাঠদান চলছে। জরাজীর্ণ ভবনের ছাদ ধসে পড়ে দুর্ঘটনা ঘটার আশংকায় অভিভাবকেরা তাদের সন্তানদের বিদ্যালয়ে পাঠাতে চাইছেন না। ফলে ক্রমেই ছাত্র উপস্থিতির সংখ্যা কমছে।জানা যায়, ওই বিদ্যালয়টি ১৯৪০ সালে স্থাপিত হয়। পরবর্তিতে ১৯৯৪ সালে ৩ রুম বিশিষ্ট নতুন ভবনটি স্থাপন করা হয়। বর্তমানে শিক্ষকের সংখ্যা ৪ জন ও শিক্ষাথীর সংখ্যা ১৪০ জন। বিদ্যালয় ভবনের প্রত্যেকটি রুমের ভেতরের ছাদ থেকে প্লাস্টার খসে পড়ছে। রুমের মাঝখানের বিমে ফাটল ধরেছে। এতে যে কোন সময় ছাঁদ বা ছাঁদের বিম ভেঙ্গে দুর্ঘটনার আশঙ্কা রয়েছে।
শিক্ষার্থীরা বলেন, ক্লাস চলাকালিন ছাদের প্লাস্টার খসে তাদের শরীরের ওপর পরে। অভিভাবক ফজলুর করিম জনান, বিদ্যালয়ের ভবনটির এ সমস্যার বিষয়টি তাদের ভাবিয়ে তুলেছে। ফলে তাদের কোমলমতি সন্তানদের বিদ্যালয়ে পাঠাতে চাইছেন না। এতে শিক্ষার্থীরা পড়াশুনায় পিছিয়ে পড়ছে। প্রধান শিক্ষক আব্দুল মতিন জানান, বিষয়টি সংশ্লিষ্ট দপ্তরে প্রতিবেদন দাখিলের মাধ্যমে জানানো হয়েছে। এ ছাড়াও বেশ কয়েকজন সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার সরেজমিনে বিষয়টি সম্পর্কে জেনে গেছেন।সদর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার রুনা লায়লা বলেন, এ বিষয়ে তিনি এখনও জানেন না। ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সংশ্লিষ্ট বিষয় সম্পর্কে লিখিতভাবে জানালে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গস্খহণ করা হবে।জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার হারুন অর রশিদ জানান, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সমস্যার ব্যাপারে জানালে দ্রæত ওই সমস্যার সমাধান করা হবে।