ঠাকুরগাঁওয়ে প্রতিবেশী হত্যায় আসামির যাবজ্জীবন

ঠাকুরগাঁওয়ে প্রতিবেশী হত্যায় আসামির যাবজ্জীবন

ঠাকুরগাঁওয়ে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে ছয় বছর আগে প্রতিবেশীকে হত্যা মামলায় এক ব্যক্তিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। রোববার জেলার অতিরিক্ত দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো.হায়দার আলী এ রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডিত আব্দুল খালেক বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার মেছনী গ্রামের রহিম উদ্দীনের ছেলে।  রায় ঘোষণার সময় তিনি কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিলেন।

যাবজ্জীবনের পাশাপাশি তাকে দশ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও তিন মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

মামলার বরাতে বলা হয়, গ্রামের এক খণ্ড জমি নিয়ে প্রতিবেশী আব্দুল হকের সঙ্গে খালেকের বিরোধ চলছিল। এর জেরে গত ২০১২ সালের ৯ অগাস্ট সকালে আব্দুল হকের বাড়িতে ঢুকে তাকে ছুরি দিয়ে কুপিয়ে জখম করেন খালেক।

এ সময় আব্দুল হকের চিৎকারে স্থানীয়রা ছুটে গেলে খালেক পালিয়ে যান। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আব্দুল হকের মৃত্যু হয়।

ওই দিনই আব্দুল হকের ছেলে শাহ আলম বাদী হয়ে খালেককে আসামি করে বালিয়াডাঙ্গী থানায় মামলা করেন। পরে স্থানীয়রা খালেককে আটক করে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী আব্দুল হামিদ বলেন, তদন্ত শেষে বালিয়াডাঙ্গী থানার এসআই আনোয়ারুল করিম ২০১২ সালের ১৭ ডিসেম্বর খালেকের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দিলে এ মামলার বিচারকাজ শুরু হয়।