ট্রাম্পের ‘আমেরিকা ফার্স্ট’ নীতি : দুইটি পণ্যে ‘বিতর্কিত’ শুল্ক আরোপ

ট্রাম্পের ‘আমেরিকা ফার্স্ট’ নীতি : দুইটি পণ্যে ‘বিতর্কিত’ শুল্ক আরোপ

করতোয়া ডেস্ক : ‘আমেরিকা ফার্স্ট’ নীতির আলোকে ওয়াশিং মেশিন ও সৌর প্যানেল আমদানিতে ‘বিতর্কিত’ শুল্ক আরোপ করেছে ট্রাম্প প্রশাসন। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা যায়। প্রতিবেদনে বলা হয়, ডোনাল্ড ট্রাম্পের ‘আমেরিকা ফার্স্ট’ ব্যবসায়িক নীতিতে স্থানীয় উৎপাদনকারীদের বাড়তি সুবিধা দিতে এই কর আরোপ করা হয়েছে।ট্রাম্প প্রশাসনের এক মুখপাত্র জানান, তারা সবসময়ই মার্কিন কর্মী, কৃষক ও ব্যবসায়ীদের পাশে থাকবেন। মার্কিন কর্মকর্তারা জানান, এরকম আরও ব্যবসায়িক পদক্ষেপ নেওয়া হবে।
 
তবে এই নীতিতে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হবে চীন ও দক্ষিণ কোরিয়া। তারা এই পদক্ষেপের সমালাচনা করেছে।গত বছর ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছিলেন, ‘মার্কিন বাজারে অন্য দেশগুলোর পণ্যসামগ্রী প্রবেশে বিধিনিষেধ অনেক কম। তাদের শুল্কও কম দিতে হয়। এর জন্য যুক্তরাষ্ট্রকে মূল্য দিতে হচ্ছে। আমাদের জনগণ ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। মুক্ত বাণিজ্যের ফলে লাখ লাখ মার্কিনি কর্মসংস্থানের সুযোগ থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। এ অবস্থা আর চলতে দেওয়া যায় না।’
আগে থেকেই ট্রাম্পের ‘আমেরিকা ফার্স্ট’ নীতিতে যুক্তরাষ্ট্রের মিত্র ও প্রতিপক্ষরা সবাই চিন্তিত। ওই নীতির আলোকে জাতিসংঘের সবচেয়ে বড় আর্থিক যোগানদাতা যুক্তরাষ্ট্র সহায়তা কমিয়ে দেওয়ার ব্যাপারে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্থনিও গুয়েতেরেস বলেছেন, এতে করে ‘নিরসনের অযোগ্য সমস্যা’ তৈরি হবে। এই নীতির আওতায় টিটিপি ও নাফটা চুক্তিও পুনর্গঠনের পরিকল্পনা করছেন ট্রাম্প।