ট্যাঙ্কার হামলায় যুক্তরাষ্ট্র-সৌদি-ইসরায়েল দায়ী : ইরান

ট্যাঙ্কার হামলায় যুক্তরাষ্ট্র-সৌদি-ইসরায়েল দায়ী : ইরান

সম্প্রতি লোহিত সাগরে ইরানের তেলবাহী ট্যাঙ্কারে হামলার জন্য যুক্তরাষ্ট্র, সৌদি আরব ও ইসরায়েলকে দায়ী করেছে ইরান। দেশটির সংসদের জাতীয় নিরাপত্তা কমিশনের সদস্য আবুল ফজল হাসান বেগ স্থানীয় সংবাদমাধ্যমকে এমনটাই জানিয়েছেন।

মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক সংবাদ পর্যবেক্ষণকারী সংস্থা মিডল ইস্ট মনিটর ইরানের সংবাদ সংস্থা মেহ্রকে উদ্ধৃত করে জানিয়েছে, হাসান বেগ বলেছেন ট্যাঙ্কার হামলার সময়কার ভিডিও ফুটেজ প্রমাণ করেছে যে ওই তিন দেশ সেদিনের ওই ট্যাঙ্কার হামলার সঙ্গে জড়িত।

জাতীয় নিরাপত্তা কমিশনের সদস্য বলেছেন, ‘তেহরান ট্যাঙ্কার হামলার জন্য দায়ীদের প্রমাণ হিসেবে ওই ভিডিও ফুটেজ জাতিসংঘ ও নিরাপত্তা পরিষদে পাঠাবে। যাতে ন্যাক্কারজনক এই সন্ত্রাসী হামলার জন্য পেছনে জড়িত দেশগুলোর বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেয়া হয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘সৌদি আরব এবং যুক্তরাষ্ট্র ওই হামলার জন্য দায়েশ আর তালেবানের ওপর দায় চাপানোর চেষ্টা করছে। কিন্তু আমাদের হাতে আসা প্রমাণের তাদের এমন দাবি খারিজ করে দেবে। তারা নিজেদের দায় এড়ানোর জন্য এমনটা করেছে।

তেহরানের পক্ষে হাসান বেগ আরও জানান, দায়েশ তৈরি করেছে এবং তাদের জন্য সব ধরনের পৃষ্ঠপোষকতা করে আসছে সৌদি আরব। এদিকে গত মঙ্গলবার ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রী জাভেদ জারিফ বলেছেন, ‘ইরানের ওপর এমন হামলা সচেতনভাবে রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় এই হামলা হয়েছে।’

গত ১১ অক্টোবর সৌদির বন্দর নগরী জেদ্দার সমুদ্র উপকূলে ইরানের তেলবাহী ট্যাঙ্কারে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা হয়। ইরান বলছে, একবার নয় দুবার ট্যাঙ্কারে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায় সন্ত্রাসীরা। সৌদির রাষ্ট্রায়ত্ত তেল কোম্পানি অ্যারামকোর দুটি বৃহৎ শোধনাগারে হামলার পর সৌদি প্রতিশোধ নেয়ার হুমকি দিয়ে রেখেছিল।