টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই ইয়াবা ব্যবসায়ী নিহত

টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই ইয়াবা ব্যবসায়ী নিহত

কক্সবাজারের টেকনাফে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই ইয়াবা ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন।তারা দুইজনই রোহিঙ্গা সম্প্রদায়ের; যারা মিয়ানমারের রাখাইন থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছিলেন। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে দুইটি দেশীয় তৈরি বন্দুক ও ৫০ হাজার ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়েছে।


সোমবার (৩০ সেপ্টেম্বর) ভোরে উপজেলার দক্ষিণ দমদমিয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। বন্দুকযুদ্ধে নিহত দুইজনই রোহিঙ্গা। তারা হলেন, মিয়ানমারের আকিয়াবের মংডুর বোড়া শিকদার পাড়া গ্রামের মৃত হারুন আর রশিদের ছেলে মো. জামাল (২৭) ও একই এলাকার মো. জাফর আলমের ছেলে মো. ইউনুচ (২১)

এদিকে বিজিবির দাবি, এ ঘটনায় তাদের তিন সদস্য আহত হয়েছেন।

টেকনাফ-২ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. মোহাম্মদ ফয়সল হাসান খান  জানান, টেকনাফের দক্ষিণ দমদমিয়া এলাকায় সংঘবদ্ধ পাচারকারী চক্র পাচারের জন্য ইয়াবার বড় একটি চালান ওই এলাকায় মজুদ করেছে। এমন গোপন সূত্রে খবর পেয়ে বিজিবি সদস্যরা সেখানে অভিযান চালায়।
এ সময় ইয়াবা ব্যবসায়ীরা বিজিবি সদস্যদের লক্ষ্য করে গুলি ছুড়ে। আত্মরক্ষার্থে বিজিবির সদস্যও পাল্টা গুলি ছোড়ে। একপর্যায়ে বিজিবির অভিযানের মুখে পাচারকারীরা গুলি করতে করতে পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থল থেকে দুইটি দেশীয় তৈরি অস্ত্র, ৫০ হাজার ইয়াবা, ৩ রাউন্ড কার্তুজ, ৩টি কিরিচসহ দু’জনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরও জানান, গুলিবিদ্ধ দু’জনকে প্রথমে টেকনাফ হাসপাতালে। পরে সেখান থেকে কক্সবাজার সদর হাসপাতাল নেওয়ার পথে তাদের মৃত্যু হয়। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ দু’টি কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান তিনি।