টি-টোয়েন্টির পর টেস্ট নিয়ে ভাবতে চায় বিসিবি

টি-টোয়েন্টির পর টেস্ট নিয়ে ভাবতে চায় বিসিবি

‘শুধু বাংলাদেশ নয়, সব দেশকেই এখন থেকে পাকিস্তানে এসে খেলতে হবে। আরও কোনও নিরপেক্ষ ভেন্যুতে খেলবে না পাকিস্তান।’ গতকাল পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান এহসান মানির এমন কড়া বক্তব্যের পর কি সিদ্ধান্ত নিলো বাংলাদেশ? 
আগামী মাসেই (জানুয়ারি) তো তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ আর দুটি টেস্ট ম্যাচ খেলতে যেতে হবে পাকিস্তানে। তার আগে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডও নিজেদের সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডকে (ভেন্যুতে)।
টেস্ট নয়, তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতেই পাকিস্তান যাবে বাংলাদেশ দল। কেন না, নিরাপত্তা জনিত কারণে পাকিস্তানে বেশি সময় থাকতে রাজি নয় বিসিবি। সূচি অনুযায়ী জানুয়ারির ২৩, ২৫ ও ২৭ তারিখে টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলার কথা বাংলাদেশের।
গতকাল পিসিবি প্রধান এহসান মানির কড়া কথার আগে পাকিস্তানের প্রধান কোচ মিসবাহ উল হকও ক্ষোভ জানায়, কেন বাংলাদেশ টেস্ট খেলতে রাজি নয় পাকিস্তানে?
এরপর আজ টেস্ট দলের অধিনায়ক আজহার আলী তো আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থার (আইসিসি) কাছেও অনুরোধ জানালেন, বাংলাদেশ টেস্ট না খেলতে রাজি না হলে ব্যবস্থা নিতে।
এত কিছুর পরও বিসিবির কিছুটা হলেও টনক নড়েছে বলা যায়। আজ মঙ্গলবার বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজাম উদ্দিন চৌধুরী সুজন জানান, টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলার পর বিবেচনা করবে টেস্ট খেলা যায় কী না। এই প্রস্তাব এরিমধ্যে পিসিবিকে দিয়েছে বিসিবি।
‘আমাদের প্রাথমিক প্রস্তাবটা হচ্ছে , আমরা যদি সীমিত সময়ের জন্য তিনটি টি-টোয়েন্টি খেলে আসতে পারি তাহলে সবাই পরিস্থিতি ভালোভাবে বুঝতে পারবে। এই চিন্তা-ভাবনা থেকেই আমাদের এই প্রস্তাবটা দেওয়া।’
নিজাম উদ্দিন চৌধুরী আরও জানান, পাকিস্তানের যে অবস্থা, তাতে তারা তো চাইবেই পাকিস্তানে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট পুরোমাত্রায় ফিরে আসুক। সেই চিন্তা থেকেই হয়তো তারা ওই ধরনের কথা বলেছেন। কিন্তু আপনারা জানেন যে ম্যাচের আবহের একটা ব্যাপার আছে। একই সঙ্গে ম্যাচের সঙ্গে সম্পৃক্ত আমাদের খেলোয়াড় আছে, টিম ম্যানেজমেন্ট আছে। আমাদের টিম ম্যানেজমেন্টের বেশির ভাগ সদস্য দেশের বাইরের, বিদেশি কোচিং স্টাফ। এ ছাড়া আরও যারা সম্পৃক্ত আছেন, সবার সঙ্গে আলোচনা করে লম্বা সময় থাকার (পাকিস্তানে) ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া প্রয়োজন।’
দেশটিতে চলতি মাসেই দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলে গেছে শ্রীলঙ্কা। তার আগে দেশটিতে টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলে গিয়েছিল লঙ্কানরা। টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে লঙ্কানরা পাকিস্তান গেলেও সেই দলে ছিলেন না মূল দলের বেশির ভাগ খেলোয়াড়।