টমেটোর গয়না পরে বিয়ের সাজে পাকিস্তানি যুবতী!

টমেটোর গয়না পরে বিয়ের সাজে পাকিস্তানি যুবতী!

পাকিস্তানের টমেটোর দাম আবার আকাশ ছোঁয়া। ফলে এতদিন সোশ্যাল মিডিয়ায় এ নিয়ে প্রতিবাদ চলছিল। এবার এক নারী এই আকাশছোঁয়া দামের প্রতিবাদে টমেটোর গয়না পরেই বসলেন বিয়ের পিঁড়িতে। পাকিস্তানের এক নারী সাংবাদিক এমনই একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন। এরপর সোশ্যাল মিডিয়ায় আরও বেড়ে গেছে ‘টমেটো’ চর্চা।
সাংবাদিক নায়লা ইনায়তের শেয়ার করা ভিডিওতে দেখা যায়, এক সাংবাদিক বুম নিয়ে পৌঁছে গেছেন বিয়ে বাড়িতে। সেখানে বিয়ের কনে সোনা-হিরের বদলে পরেছেন টমেটোর গয়না। গলায়, হাতে, কানে, মাথায় পরা সব গয়ানাই টমেটোর তৈরি। তিনি জানিয়েছেন, টমেটো এখন দুর্মূল্য, তাই তিনি সোনার বদলে টমেটোর গয়নাই পরেছেন।
নায়লার পোস্ট করা এই ভিডিওটি ইতোমধ্যেই ভাইরাল হয়েছে। দশ ঘণ্টার মধ্যেই ভিডিওটি প্রায় ১৪ হাজার বার দেখা হয়েছে। সেই সঙ্গে সমানে চলছে লাইক, শেয়ার কমেন্ট।
গত কয়েক দিন ধরেই পাকিস্তানের বিভিন্ন বাজারে টমেটোর দাম লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। পাকিস্তানি সংবাদপত্র দ্য ডনের সূত্রে জানা গেছে, করাচির বিভিন্ন মার্কেটে গত সপ্তাহেই টমেটোরর দাম কেজি প্রতি ৩০০ রুপি ছাড়িয়েছে। ইরান থেকে টমেটো আসার আগেই এই দাম হঠাৎ করে বেড়ে যায় বলে জানা গেছে।

তবে পাইকারি বাজারে তুলনায় দাম কিছুটা কম। পাইকারি ব্যবসায়ীরাও এই দামবৃদ্ধি নিয়ে কিছুটা অবাক। কারণ তাদের দাবি, পাইকারি বাজারে টমেটো ২০০ থেকে ২৪০ রুপি প্রতি কেজিতে বিক্রি হচ্ছে। সেখানে খুচরা বাজারে এতটা দাম বাড়া অস্বাভাবিক।
কারণ যাই হোক, পাকিস্তানের সাধারণ মানুষ ব্যাপক সমস্যায় পড়েছেন টমেটোর দাম বাড়ায়। পাকিস্তানের গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, সাধারণ মানুষ এখন আর কেজিতে টমেটো কিনছেন না। পকেট বাঁচাতে এখন একটি-দুটি বা ১০০-২০০ গ্রাম টমেটো কিনছেন। সেক্ষেত্রে খুচরা বাজারে ২৫০ গ্রাম টমেটো কিনতে গুনতে হচ্ছে ৮০ রুপি।