টঙ্গীতে ছাত্রলীগ কর্মীকে ছুরি মেরে হত্যা

টঙ্গীতে ছাত্রলীগ কর্মীকে ছুরি মেরে হত্যা

গাজীপুর মহানগরীর টঙ্গীতে পূর্ব শত্রুতার জেরে স্থানীয় ছাত্রলীগ কর্মী প্রিন্স মাহমুদ নাহিদকে (২৮) ছুরি মেরে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে টঙ্গীর ভরান মুন্সিপাড়া রোড এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত নাহিদ টঙ্গী পূর্ব থানাধীন দত্তপাড়া এলাকার জহিরুল ইসলামের ছেলে। তিনি স্থানীয় ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সদস্য ছিলেন।

টঙ্গী পূর্ব থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) শুভ মন্ডল জানান, ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় ছাত্রলীগের সদস্য প্রিন্স মাহমুদ নাহিদকে অন্য গ্রুপের সদস্যরা ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। গুরুতর আহত নাহিদকে উদ্ধার করে স্থানীয় একটি হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। পরে খবর পেয়ে হাসপাতাল থেকে নাহিদের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়।

তবে নিহত নাহিদের বড় ভাই জুয়েল মাহমুদ পারভেজ জানান, তাদের বাড়ি টঙ্গীর দত্তপাড়া এলাকায়। নাহিদ টঙ্গী ভরার এলাকায় তার শ্বশুরবাড়িতে বেড়াতে যায়। স্থানীয় মসজিদে এশার নামাজ শেষে মসজিদ থেকে বের হয়ে শ্বশুরের বাসায় ফেরার পথে স্থানীয় রাফি, আকাশ, শাহজালাল ও চঞ্চলসহ ১০-১২ জন নাহিদকে ঘিরে ধরে। একপর্যায়ে নাহিদকে ছুরিকাঘাত করে তারা পালিয়ে যায়।

তিনি বলেন, ক্রিকেট খেলা নয়, আমার ভাইকে পূর্বপরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। তিনি এ ঘটনায় দোষিদের দ্রুত গ্রেফতার ও বিচার দাবি করেন।