জয়ের জন্য জিম্বাবুয়েকে ২১৭ রানের টার্গেট দিলো বাংলাদেশ

জয়ের জন্য জিম্বাবুয়েকে ২১৭ রানের টার্গেট দিলো বাংলাদেশ

স্পোর্টস রিপোর্টার : তামিম ইকবাল ও সাকিব আল হাসানের জোড়া হাফ-সেঞ্চুরিতে ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজের পঞ্চম ম্যাচে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং করে ৫০ ওভারে ৯ উইকেটে ২১৬ রান করেছে স্বাগতিক বাংলাদেশ। তামিম ৭৬ ও সাকিব ৫১ রান করেন। মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের ম্যাচে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্বান্ত নেন বাংলাদেশের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। তৃতীয় ওভারের প্রথম বলেই আউট হন ওপেনার এনামুল হক বিজয়। ৭ বলে ১ রান করে জিম্বাবুয়ের ডান-হাতি পেসার কাইল জার্ভিসের শিকার হন বিজয়।

এরপর জিম্বাবুয়ের বোলারদের বিপক্ষে সর্তকতার সাথে ব্যাট চালান আরেক ওপেনার তামিম ও সাকিব। তাই রান তোলার গতিও ছিলো মন্থর। তবে দলের স্কোর তিন অংকে পৌঁছে দিতে  পেরেছেন এ জুটি।দলকে শতকে পৌঁছাতে গিয়ে হাফ-সেঞ্চুরির স্বাদ নিয়েছেন তামিম-সাকিব। তামিম ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ৪১তম ও সাকিব ৩৭তম হাফ-সেঞ্চুরির দেখা পান। হাফ-সেঞ্চুরির পর বেশি দূর যেতে পারেননি সাকিব। ৬টি চারে ৮০ বলে ৫১ রানে থামেন তিনি।

দলীয় ১১২ রানে সাকিবের বিদায়ে উইকেটরক্ষক মুশফিকুর রহিমকে নিয়ে ইনিংস মেরামতের সিদ্বান্ত নেন তামিম। কিন্তু বড় জুটিতে ব্যর্থ তারা। জুটিতে ৩৫ রান আসার পর বিচ্ছিন্ন মুশফিকুর। ১টি ছক্কায় ২৫ বলে ১৮ রান করেন মুশি।মুশফিকুরের বিদায়ের পর যাওয়া আসার মিছিল শুরু করে বাংলাদেশের পরের দিকের ব্যাটসম্যানরা। দলীয় ১৭০ই রানে অষ্টম উইকেট হারিয়ে বসে বাংলাদেশ। এসময় মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ২, সাব্বির রহমান ৬, নাসির ২, মাশরাফি শুন্য রানে সাজ ঘরে ফেরেন। এছাড়া ৭৬ রানে থামেন তামিম।

স্বীকৃত ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় দ্রুত গুটিয়ে যাবার শংকায় পড়ে বাংলাদেশ। তবে সেটি হতে দেননি শেষ তিন ব্যাটসম্যান সানজামুল ইসলাম, মুস্তাফিজুর রহমান ও রুবেল হোসেন।সানজামুল ১৯ রান করে ফিরলেও, মুস্তাফিজুর ১৮ ও রুবেল ৮ রান নিয়ে অপরাজিত থাকেন। জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক গ্রায়েম ক্রেমার ৪টি ও জার্ভিস ৩টি উইকেট নেন।