জিয়াউর রহমানের কবরে খালেদা জিয়ার শ্রদ্ধা

জিয়াউর রহমানের কবরে খালেদা জিয়ার শ্রদ্ধা

স্টাফ রিপোর্টার: বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৮২তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে তার কবরে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেছেন দলটির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। গতকাল শুক্রবার বেলা সোয়া ১১টার দিকে দলের জ্যেষ্ঠ নেতাদের নিয়ে রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে প্রয়াত নেতার কবর প্রাঙ্গণে আসেন বিএনপি নেত্রী। পরে প্রয়াত নেতার কবরে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন তিনি।

এ সময় দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মওদুদ আহমদ, মির্জা আব্বাস, আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, জ্যেষ্ঠ নেতা শামসুজ্জামান দুদু, আমানউল্লাহ আমান, জয়নুল আবদিন ফারুক, আবদুস সালাম, হাবিবুর রহমান হাবিব, রুহুল কবির রিজভী, সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, কেন্দ্রীয় নেতা চিত্রনায়ক আশরাফউদ্দিন আহমেদ উজ্জ¦ল, জন গোমেজ, দেবাশীষ রায় মধু, মহানগর উত্তরের মুন্সি বজলুল বাসিত আনজু, আহসানউল্লাহ হাসান, এবিএমএ রাজ্জাক, দক্ষিণের কাজী আবুল বাশার, সাইদুর রহমান মিন্টু, ইঞ্জিনিয়ার গোলাম কিবরিয়া, মহিলা দলের আফরোজা আব্বাস, সুলতানা আহমেদ, যুবদলের সাইফুল আলম নিরব, সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, মোরতাজুল করিম বাদরু, স্বেচ্ছাসেবক দলের শফিউল বারী বাবু, গোলাম সারোয়ার, জাসাসের সাধারণ সম্পাদক হেলাল খান, সহ-সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম রিপন, ছাত্রদলের রাজীব আহসান, আসাদুজ্জামান আসাদ, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সিনিয়র সহ-সভাপতি সঞ্জিত কুমার দেব জনি প্রমুখ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

জিয়ার কবরে পুষ্পমাল্য অর্পণের আগে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল ইসলাম দাবি করে বলেন, সরকারের আইন মন্ত্রণালয় ও নির্বাচন কমিশনের যোগ-সাজসেই উত্তর সিটি করপোরেশন উপ-নির্বাচন স্থগিত করানো হয়েছে। তিনি বলেন, বর্তমান নির্বাচন কমিশন যোগ্য নয়। তারা সরকারের আইন মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে যোগ-সাজস করে এই কাজটা (নির্বাচন স্থগিত করানো) করেছে। এটা খুব সুস্পষ্ট-সরকার খুব ভালো করে জানে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের নির্বাচনটা হলে তাদের পরাজয় অবিসম্ভাবী ছিলো। সেটাকে এড়িয়ে যাওয়ার জন্য তারা আজকে এই যোগসাজস করে এই রিট করেছে এবং নির্বাচন স্থগিত করিয়েছে। সরকারি দলের নেতারা বলছেন যে বিএনপির একজন ইউনিয়ন চেয়ারম্যান রিট করে উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচন স্থগিত করিয়েছে- এ রকম প্রশ্নের জবাবে বিএনপির মহাসচিব বলেন, এটা তাদের অপরাধ এড়িয়ে যাওয়ার বিষয়। মামলা করেছে সেটা তো বড় কথা নয়। মূল বিষয়টা হচ্ছে, নতুন যে ইউনিয়নগুলো সিটি করপোরেশনে অন্তর্ভুক্ত হয়েছে- সেগুলোর কোনো সীমানা নির্ধারণ করা হয়নি, ভোটার তালিকা করা হয় নাই, যার ফলে নির্বাচন স্থগিত হয়েছে। এটা নির্বাচন কমিশনের সম্পূর্ণ ব্যর্থতা। তারা সমস্ত যে আইন-কানুনগুলো আছে, যে সমস্ত কাজ করা দরকার সেগুলো না করেই নির্বাচনের সিডিউল ঘোষণা করেছে। এই কাজগুলো আইন মন্ত্রণালয়ের করার দায়িত্ব ছিল। কিন্তু তারা করেনি।

১৯৩৬ সালের ১৯ জানুয়ারি বগুড়ার গাবতলী উপজেলার বাগবাড়ি গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন জিয়াউর রহমান। দিবসটি পালনে বিএনপি গত বৃহস্পতিবার থেকে সপ্তাহব্যাপী কর্মসূচি শুরু করছে। এসব কর্মসূচির মধ্যে আলোচনা সভা, শোভাযাত্রা, রচনা প্রতিযোগিতা, দুস্থদের মধ্যে শীতবস্ত্র বিতরণ, ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প ও আলোকচিত্র প্রদর্শনী রয়েছে। প্রয়াত নেতার জন্মদিন উপলক্ষে গতকাল শুক্রবার ভোরে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়সহ সারা দেশের মহানগর এবং জেলা-উপজেলা কার্যালয়ে দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। সকালে নয়াপল্টনে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিচতলায় জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের উদ্যোগে জিয়াউর রহমানের জীবন-কর্মের উপর আলোকচিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন বিএনপি মহাসচিব। এ সময়ে বিএনপি নেতা রুহুল কবির রিজভী, হাবিব-উন-নবী খান সোহেল, শহীদউদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, শায়রুল কবির খান, ছাত্রদলের রাজীব আহসান, নাজমুল হাসান, তারেক উজ্জামান তারেক, জহিরুল ইসলাম বিপ্লব, আসাদুজ্জামান আসাদ, নুরুল হুদা বাবু, মেহবুব মাসুম শান্ত, আরিফা সুলতানা রুমা, মিনহাজুল ইসলাম ভুইয়া প্রমুখ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। জিয়ার জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে বিকেলে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে শ্রমিক দলের পক্ষ থেকে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়।