জিম্বাবুয়ের নারী ক্রিকেটারদের ইংল্যান্ড যেতে আইসিসির বাধা

জিম্বাবুয়ের নারী ক্রিকেটারদের ইংল্যান্ড যেতে আইসিসির বাধা

ক্রিকেট বোর্ডের ওপর সরকারী হস্তক্ষেপ- এই অভিযোগে ইতিমধ্যেই জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট বোর্ডকে বহিস্কার করেছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। এরপরই জিম্বাবুয়ে আগামী সেপ্টেম্বরে বাংলাদেশে অনুষ্ঠিতব্য ত্রি-দেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজে অংশ না নেয়ার কথা জানিয়ে দেয়। আইসিসির নিষেধাজ্ঞার কারণে, এমনিতেই এই সিরিজে তারা অংশ নিতে পারতো না।

এবার ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিতব্য একটি টি-টোয়েন্টি সিরিজে অংশ নিতে যাওয়া জিম্বাবুয়ে নারী ক্রিকেট দলের চার সদস্য এবং একজন কোচের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে আইসিসি। বোর্ডের ওপর নিষেধাজ্ঞার কারণে সেই দেশটির ক্রিকেটারদের ও বিদেশের ক্রিকেটে অংশ নিতে বাধা দিলো ক্রিকেটের আন্তর্জাতিক সংস্থাটি।


ইংল্যান্ডে একটি নারী টি-টোয়েন্টি সিরিজে ওমেন্স গ্লোবাল ডেভেলপমেন্ট স্কোয়াডের জন্য নির্বাচিত করা হয় জিম্বাবুয়ের চারজন নারী ক্রিকেটারকে। এরা হলেন জিম্বাবুয়ে নারী ক্রিকেট দলের অধিনায়ক ম্যারি অ্যান মুসোন্দা, স্কোয়াড সদস্য আনেসু মুসাঙ্গুয়ে, তাসমিন গ্রাঞ্জার এবং শার্নে মায়ার্স। এছাড়া কোচ অ্যাডাম শিপোরও এই চার ক্রিকেটারের সঙ্গে ইংল্যান্ড যাওয়ার কথা ছিল।

কিন্তু এই চার ক্রিকেটার এবং তাদের কোচকে ইংল্যান্ডও যেতে দিচ্ছে না আইসিসি। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের অভিভাবক সংস্থাটির ওমেন্স ক্রিকেট ম্যানেজার হলি কলভিন জানিয়েছেন, ‘দুর্ভাগ্যবশতঃ জানাতে হচ্ছে যে, ওমেন্স গ্লোবাল ডেভেলপমেন্ট স্কোয়াড প্রোগ্রামে বিশ্বব্যাপি অংশগ্রহণ বাড়ানোর জন্য যে চারজন জিম্বাবুইয়ান ক্রিকেটার ও প্রধান কোচ অ্যাডামকে নির্বাচিত করা হয়েছে, তাদেরকে আমরা ইউকে (ইংল্যান্ড) সংস্করণে অংশ নিতে দিতে পারছি না। যেটা অনুষ্ঠিত হবে আগামী সপ্তাহে।’

গত সপ্তাহেই জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট বোর্ডকে বহিস্কারের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে আইসিসি এবং তখন থেকেই সেই সিদ্ধান্ত কার্যকর করা হয়েছে। যে কারণে, জিম্বাবুয়ে বাংলাদেশ সফর থেকে তাদের নাম প্রত্যাহার করে নেয়।

হলি কলভিন আরও বলেন, ‘আমরা নিশ্চিত যে আপনারা বিষয়টা জানেন। আইসিসি বোর্ড জিম্বাবুয়ে ক্রিকেটকে বহিস্কার করার একটা সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। একই সঙ্গে আইসিসির যে কোনো ইভেন্টে জিম্বাবুয়ে জাতীয় দলের ক্রিকেটার এবং কর্মকর্তাদের অংশগ্রহনের ওপরও নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে।’

জিম্বাবুয়েতে ক্রিকেট নিয়ে এমন টানপোড়েনের পর সিকান্দার রাজা এবং সলোমন মিরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন।