জাহাঙ্গীরনগর উত্তাল

জাহাঙ্গীরনগর উত্তাল

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলামের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ এবং তার অপসারণের আন্দোলনকে ঘিরে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস। গত মঙ্গলবার আন্দোলনরত শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ওপর জাবি ভিসির হয়ে হামলা চালিয়েছে শাখা ছাত্রলীগ। এতে ৮ শিক্ষক সহ অন্তত ৩৫ জন আহত হয়েছেন। উত্তপ্ত পরিস্থিতি সামাল দিতে ক্যাম্পাস অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এদিকে হামলা চালিয়ে আন্দোলনকারীদের উপাচার্যের বাসার সামনে থেকে হটিয়ে দেওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনে সাংবাদিকদের জাবি উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলাম এ ঘটনায় ছাত্রলীগের হামলাকে ঠিক কাজ হিসেবে উল্লেখ করেছেন। তিনি বলেন, আমার সহকর্মীসহ ছাত্রলীগের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ। কারণ তারা দায়িত্ব নিয়ে এ কাজটি করেছে। এদিকে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করা হলেও উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের অপসারণ দাবিতে অনড় রয়েছেন আন্দোলনরত শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

মঙ্গলবারের ওই হামলার প্রতিবাদে জাবি শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সহ ৪ জন শিক্ষক সমিতি থেকে পদত্যাগ করেছেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে হামলার দিনই অনির্দিষ্টকালের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করে শিক্ষার্থীদের হল ছেড়ে যাওয়ার নির্দেশ দেয় প্রশাসন। কিন্তু আন্দোলনরত শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধের নির্দেশ প্রত্যাখ্যান করে উপাচার্যকে অপসারণের এক দফা দাবি আদায়ে অনড় রয়েছেন। প্রশাসনকে অবশ্যই হামলাকারীদের চিহ্নিত করে দ্রুত বিচারের আওতায় নিয়ে আসতে এবং ক্যাম্পাসে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তায় যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। দুর্নীতির অভিযোগে ভিসির অপসারণ চেয়ে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের আন্দোলন অযৌক্তিক নয়। কারণ এর আগে উপাচার্য কোটি কোটি টাকা ছাত্র নেতাদের ঘুষ দিয়েছেন বলে ইতিপূর্বে গণমাধ্যমে খবর এসেছে। সে সংক্রান্ত অডিও রেকর্ড ফাঁস হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার পরিবেশ ফিরিয়ে আনা দলবাজ রাজনীতি আর সব অনাচার- দুর্নীতি থেকে বিশ্ববিদ্যালয়কে মুক্ত করা জরুরি।