জাতীয় লিগের শুরুতেই বৃষ্টির বাগড়া

জাতীয় লিগের শুরুতেই বৃষ্টির বাগড়া

এবারের জাতীয় ক্রিকেট লিগ নিয়ে আগ্রহ, উদ্দীপনা ও খেলোয়াড়দের মধ্যে সিরিয়াসনেসটা ছিলো অন্য যেকোনোবারের অনেক বেশি। বিশেষত ভারতের বিপক্ষে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের আগে জাতীয় দলের তারকা খেলোয়াড়রাও নিশ্চিত করেছেন নিজেদের অংশগ্রহণ।

সবার অপেক্ষা ছিলো আজ (বৃহস্পতিবার) থেকে শুরু হবে দেশের প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় আসর জাতীয় ক্রিকেট লিগ। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে সকাল সাড়ে ৯টা থেকেই চার মাঠে শুরু হয়ে যেত আট দলের লড়াই। কিন্তু সবার অপেক্ষা বাড়িয়ে দিয়েছে বৃষ্টি।


শুধুমাত্র মিরপুরের শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম ব্যতীত আর কোথাওই যথাসময়ে ম্যাচ শুরু করা সম্ভব হয়নি। শেরে বাংলায় মুখোমুখি হয়েছে ঢাকা মেট্রো ও চট্টগ্রাম বিভাগ। চট্টগ্রাম অধিনায়ক মুমিনুল হক টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। খেলা ঠিক সাড়ে ৯টায়ই শুরু হয়েছে।

এছাড়া বাকি তিন মাঠেই ঝামেলা বাঁধিয়েছে বৃষ্টি। নারায়নগঞ্জের ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হবে প্রথম স্তরের দুই দল ঢাকা ও রাজশাহী বিভাগ। কিন্তু গুড়ি গুড়ি বৃষ্টির কারণে যথাসময়ে খেলা শুরু করা সম্ভব হয়নি।

এছাড়া খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে নামার কথা ছিলো প্রথম স্তরের দুই দল রংপুর আর খুলনা বিভাগের। কিন্তু আজ সকাল ৯টা পর্যন্ত বৃষ্টি হওয়ায় লাঞ্চ ব্রেকের আগে এই মাঠে খেলা হওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই।

অন্যদিকে রাজশাহীর শহীদ কামরুজ্জামান স্টেডিয়ামে দেখা হবে দ্বিতীয় স্তরের দুই দল বরিশাল আর সিলেটের। এ মাঠে কোনো বৃষ্টি নেই। তবে গত রাতে টানা বৃষ্টির কারণে এখনও ভেজা আউটফিল্ড। তাই দেরিতেই শুরু হবে এখানের ম্যাচটিও।


এদিকে ১০-১৩ অক্টোবর প্রথম পর্ব শেষের পর তিনদিন বিরতি। এরপর ১৭ অক্টোবর শুরু দ্বিতীয় রাউন্ড। ওই পর্বে ঢাকার শেরে বাংলায় কোন খেলা নেই। খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হবে খুলনা ও রাজশাহী।

আর রংপুর ও ঢাকা বিভাগ লড়বে চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে। বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের খেলা হবে ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে এবং ঢাকা মেট্রো ও সিলেট বিভাগ প্রতিদ্বন্দ্বীতা হবে বগুড়ার শহীদ চান্দু স্টেডিয়ামে।