মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে আসা রোহিঙ্গাদের মধ্যে জঙ্গিবাদ ছড়াতেই রোহিঙ্গা নারীকে বিয়ে করলেন র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার হওয়া জেএমবির সারোয়ার-তামিম গ্রুপের সদস্য মো. মিজানুর রহমান ওরফে আব্দুল্লাহ ওরফে আব্দুল্লাহ আল মিজান (৩৭)। তিনি তার স্ত্রীকে দিয়ে রোহিঙ্গা নারীদের জঙ্গিবাদ তৈরি করার পরিকল্পনাও করেছিলেন।

জঙ্গিবাদ ছড়াতেই রোহিঙ্গা নারীকে বিয়ে করেন মিজান

জঙ্গিবাদ ছড়াতেই রোহিঙ্গা নারীকে বিয়ে করেন মিজান

বৃহস্পতিবার বিকেলে গ্রেফতার আব্দুল্লাহ আল মিজানের বিরুদ্ধে র‌্যাব-১১ এর সিনিয়র এএসপি আলেপ হোসেন এমন তথ্য জানিয়েছেন। এর আগে মঙ্গলবার রাতে রাজধানীর যাত্রাবাড়ী এলাকার সায়েদাবাদ বাসস্ট্যান্ড থেকে জেএমবি সদস্য মো. মিজানুর রহমানকে গ্রেফতার করে র‌্যাব-১১।

জেএমবি সদস্য মিজানের বিরুদ্ধে গত ২২ আগস্ট নারায়ণগঞ্জের বন্দর থানায় সন্ত্রাসবিরোধী আইনে মামলা করা হয়। সেই মামলায় র‌্যাব ১১-এর একটি দল তাকে ঢাকা থেকে গ্রেফতার করে। র‌্যাব জানায়, জেএমবির সদস্য আব্দুল্লাহ ওরফে আব্দুল্লাহ আল মিজান টেকনাফের কুতুপালং এলাকায় জেএমবির দাওয়াতি কার্যক্রমের জন্য নিজস্ব একটা বলয় তৈরি করতে চেয়েছিল।

এ জন্য একমাস আগে এক রোহিঙ্গা নারীকে বিয়ে করে। বাংলাদেশে রোহিঙ্গারা আসা শুরুর আগেও মিজান কুতুপালং গিয়েছিল। রোহিঙ্গারা আসার পরও কয়েকবার যায়। তার উদ্দেশ্য ছিল রোহিঙ্গাদের মধ্যে জঙ্গিবাদ বিস্তার করা। তবে ওই রোহিঙ্গা নারীকে আটক করতে পারেননি বলেও জানান র‌্যাব-১১ এর সিনিয়র এএসপি আলেপ হোসেন।