‘চেয়ারম্যান আসে-যায়, বিআরটিসির পরিবর্তন হয় না’

‘চেয়ারম্যান আসে-যায়, বিআরটিসির পরিবর্তন হয় না’

কর্মকর্তাদের অনিয়ম ও দুর্নীতি বন্ধ না হওয়ায় ডুবতে বসেছে রাষ্ট্রয়ত্ত সংস্থা বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপোরেশন (বিআরটিসি)। সংস্থাটিকে টেনে তোলার জন্য বিভিন্ন সময় সৎ ও দক্ষ চেয়ারম্যান নিয়োগ দিয়েছে সরকার। তাতে কোনো কাজ হয়নি। লোকসানের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রয়েছে বিআরটিসিতে। লোকসানের কারণে বকেয়া পড়েছে শ্রমিকদের বেতন-ভাতাও।


সোমবার (১৬ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর মতিঝিলে বিআরটিসি ভবনে আয়োজিত বিআরটিসির চলমান এবং ভবিষ্যৎ কার্যক্রম সম্পর্কে দিক নির্দেশনা ও মতবিনিময় সভায় সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের বক্তব্যে এমনটাই উঠে এসেছে। 

সংস্থাটির নতুন চেয়ারম্যান মো. এহছানে এলাহী যোগ দেওয়ার সার্বিক বিষয়ে মতামতের জন্য এই সভার আয়োজন করা হয়। এতে বিআরটিসির ডিপো ব্যবস্থাপকরাও উপস্থিত ছিলেন।
 
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। দীর্ঘদিন ধরে লোকসানে থাকা সংস্থাটির কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে এ সময় নানা ধরেনের সর্তকতামূলক বক্তব্য দেন তিনি। 
 
সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, স্বচ্ছতা নিশ্চিত করা গেলে বিআরটিসি লাভের মুখ দেখবে। যারাই চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব নেন, এসেই নানা রকম প্রতিশ্রতি দেন। কয়েকদিন পরেই আগের চেয়ারম্যানদের মতো হয়ে যান। নতুন নতুন চেয়ারম্যান আসে-যায়, কিন্তু বিআরটিসির কোনো পরিবর্তন হয় না।
 
ওবায়দুল কাদের বলেন, এখানে সর্ষের মধ্যে ভূত আছে। এগুলো দুর করতে হবে। যদিও মন্ত্রী নতুন চেয়ারম্যান তার সঙ্গে আগে কাজ করেছেন বলে জানান। তবে দুর্নীতিবাজ জনবল না রেখে কম জনবল দিয়ে কাজ চালিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন মন্ত্রী। জেনে শুনে কোনো কর্মকর্তাকে না রাখার নির্দেশ দেন।
 
তিনি বলেন, দুর্নীতি কঠোর হাতে দমন করা হবে। নতুন চেয়ারম্যানের দায়িত্ব থাকবে যেসব কর্মকর্তা অনিয়ম করে নিজের পকেট ভারী করে, তাদের রাখার প্রয়োজন নেই। 

ঈদের সময় অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন ওবায়দুল কাদের।
 
তিনি বলেন, এখন থেকে কর্মকর্তাদের লক্ষ্যমাত্রা নিয়ে কাজ করতে হবে। এসব বিষয়ে চেয়ারম্যান সর্তক হলে বিআরটিসি লাভের মুখ দেখবে। 
 
ভারত থেকে আনা নতুন বাসে ত্রুটির বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ওবায়দল কাদের বলেন, এসব বাস আনায় কোনো কর্মকর্তার গাফিলতি আছে কি-না তা খতিয়ে দেখতে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করার জন্য চেয়ারম্যানকে বলেছি। আশা করি এ বিষয়ে কোনো অনিয়ম হয়ে থাকলে তা উদঘাটন করা সম্ভব হবে। 
 
নতুন বাসগুলোর ত্রুটি সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান ঠিক করে দিবে জানিয়ে তিনি বলেন, এজন্য একটি নির্দিষ্ট সময় দেওয়া হবে তাদের।
 
অনুষ্ঠানের শুরুতে বিআরটিসির চেয়ারম্যান এহছানে এলাহী বিআরটিসির জনবল, মোট বাস, ট্রাক, সচল, অকেজো, মোট আয়-ব্যয়ের সারাংশ তুলে ধরে বক্তব্য দেন।