চুয়াডাঙ্গায় আবাসিক হোটেল থেকে তরুণীর মরদেহ উদ্ধার

চুয়াডাঙ্গায় আবাসিক হোটেল থেকে তরুণীর মরদেহ উদ্ধার

 চুয়াডাঙ্গা শহরের একটি আবাসিক হোটেল থেকে ফরিদা খাতুন (২২) নামে এক তরুণীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ হোটেলের ম্যানেজোরসহ তিনজনকে আটক করেছে।

সোমবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

হোটেলের মালিক জিসান জোয়ার্দার জানান, ২১ ফেব্রুয়ারি রাতে আনোয়ার হোসেন ও ফরিদা স্বামী-স্ত্রী পরিচয় দিয়ে হোটেলের ২০৪ নম্বর কক্ষটি ভাড়া নেন। তারা ঠিকানা দেন গাজীপুরের। সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে কক্ষটি বাইরে থেকে তালাবদ্ধ দেখে পুলিশে খবর দেওয়া হয়। পরে পুলিশ গিয়ে তালা ভেঙ্গে ভেতরে ঢুকে ফরিদার বিবস্ত্র মরদেহ দেখতে পায়।

চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি, অপারেশন) আমির আব্বাস জানান, মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

তিনি আরো জানান, স্বামী পরিচয়দানকারী আনোয়ার পলাতক। তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। ধর্ষণের পর মেয়েটিকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।