চুল-দাড়ি-গোঁফ পেকে এ কী হাল সালমানের!

চুল-দাড়ি-গোঁফ পেকে এ কী হাল সালমানের!

গত বছরের ডিসেম্বরে ৫৩ বছর পূর্ণ হয়েছে বলিউড ভাইজান সালমানের। তারপর কেটে গেছে মাত্র তিন মাস। আর এ তিন মাসেই চেহারায় এত পরিবর্তন। চুল, দাড়ি-গোঁফ সবই পেকে একাকার, চোখে চশমা। যেন ষাটোর্ধ্ব বৃদ্ধ তিনি।

প্রশ্ন জাগতেই পারে এক ধাক্কায় বয়সটা এত বেড়ে যাওয়ার কারণ কী? এটা কি তার আসল চেহারা? না, এক্কেবারেই নয়। সালমানের এই বৃদ্ধ লুক তার আগামী ছবি ‘ভারত’-এর জন্য। সোশ্যাল মিডিয়াতে ছবির নয়া লুক পোস্ট করে ক্যাপশনে সালমান লিখেছেন, ‘যত সাদা চুল আমার মাথা ও দাড়িতে রয়েছে তার থেকে অনেক বেশি রঙিন জীবন আমার কেটেছে।’


‘ভারত’-এর শ্যুটিংয়ের সময়কালীন আরও একটি সালমানের বৃদ্ধ লুকের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘোরাফেরা করছে। যেটি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করেছেন সালমানের ‘প্যায়ার কিয়া তো ডরনা কেয়া’, ‘গড তুসি গ্রেট হো’ ছবির সহ-অভিনেত্রী বিনা কক।

আলী আব্বাস জাফর পরিচালিত সালমানের ‘ভারত’ একটি পিরিয়ড ড্রামা। ছবিটি ১৯৪৭-এর পটভূমিতে তৈরি হয়েছে। আর পোস্টারে সালমানের যে বৃদ্ধ লুক সামনে আনা হয়েছে তা ২০১০ সালের পটভূমিতে। ছবির পোস্টারে লেখা রয়েছে -‘জার্নি অব অ্যান ম্যান অ্যান্ড ন্যাশন টুগেদার।’

দক্ষিণ কোরিয়ার ছবি ‘অড টু মাই ফাদার’-এর হিন্দি রিমেক ‘ভারত’। তবে পরিচালক আলী আব্বাস জাফর বলেছেন, রাজ কাপুরের ‘মেরা নাম জোকার’ সিনেমা থেকে অনুপ্রাণিত ‘ভারত’। ভারতীয়-রাশিয়ান সার্কাসের বিষয়টি মাথায় রেখেই তৈরি হয়েছে ছবিটি। এই সিনেমায় সালমান খানকে স্টান্টম্যানের ভূমিকায় বিভিন্ন বয়সের পাঁচটি লুকে দেখা যাবে। ১৯৬০ সালের প্রেক্ষাপট থেকে বর্তমান পর্যন্ত সময়কালকে ধরা হবে এই ছবিতে।

ছবিতে ক্যাটরিনা কাইফকে দেখা যাবে কোঁকড়া চুলে। পোস্টারে একটা ছোট্ট শিশু কোলে একজন নারীকে দেখা যায়, দৃশ্যটি দেশভাগের কথা মনে করিয়ে দেয়।

সালমান খান, ক্যাটরিনা কাইফ ছাড়া এই ছবিতে আরও থাকছেন দিশা পাটানি, টাবু ও সুনীল গ্রোভার। ছবিটি প্রযোজনা করছেন অতুল অগ্নিহোত্রীর রিল লাইফ প্রোডাকশন লিমিটেড এবং ভূষণ কুমারের টি-সিরিজ। চলতি বছরের রোজার ঈদে ছবিটি মুক্তি পাবে।

‘ভারত’ ছবি মুক্তির সম্ভাব্য তারিখ ৫ জুন।