চলচ্চিত্রের শিল্পীদের প্রধানমন্ত্রী সর্বোচ্চ মূল্যায়ণ করেন বললেন ববিতা

চলচ্চিত্রের শিল্পীদের প্রধানমন্ত্রী সর্বোচ্চ মূল্যায়ণ করেন বললেন ববিতা

অভি মঈনুদ্দীন : গত ৮ জুলাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছ থেকে ‘আজীবন সম্মাননা’ গ্রহন করেন দেশের আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন নায়িকা ববিতা। রাজধানীর আগারগাঁওয়ের বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলনকেন্দ্রে সেদিন সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রী ববিতার হাতে এই সম্মাননা তুলে দেন। সম্মাননা শেষে বেশ কিছুটা সময় ববিতা প্রধানমন্ত্রীর পাশে বসে চলচ্চিত্র প্রসঙ্গে নানান কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলাপ করে ববিতা অনুধাবন করলেন যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী চলচ্চিত্রকে অনেক ভালোবাসেন, চলচ্চিত্রের শিল্পীদের তিনি সর্বোচ্চ মূল্যায়ণ করার চেষ্টা করেন। ববিতা বলেন,‘ ৮ জুলাই আজীবন সম্মাননা পাবার পর আমি এবং ফারুক ভাই মাননীয় প্র্রধানমন্ত্রীর দু’পাশে বসেছিলাম বেশ কিছুটা সময়। সে সসময় তারসঙ্গে চলচ্চিত্রের নানান বিষয় নিয়ে কথা হয়েছে। তারসঙ্গে কথা বলে এটা অনুধাবন করতে পেরেছি যে আমাদের চলচ্চিত্রকে চলচ্চিত্র পরিবারকে তিনি অনেক ভালোবাসেন। শুধু তাই নয় চলচ্চিত্র শিল্পীদের যাকে যেভাবে মূল্যায়ন করা উচিত তিনি তাই করেন, শিল্পীদেরকে সর্বোচ্চ মূল্যায়ন করার চেষ্টা করেন।

কারণ মনেপ্রাণে তিনি আমাদের চলচ্চিত্রকে ভালোবাসেন। আর তাই দেশের বাইরে যখন তিনি যান তখন তিনি বিমানে বসে দীর্ঘ সময় ধরে বাংলাদেশের সিনেমাই উপভোগ করেন।’ ববিতা চলচ্চিত্রে সারা জীবনের অবদান স্বরূপ পেয়েছেন আজীবন সম্মাননা’। ববিতা বলেন,‘ গতকাল খুউব সকাল থেকেই দেশ বিদেশ থেকে নানানভাবে শুভেচ্ছা পাচ্ছি, অভিনন্দন পাচ্ছি। এ যে কতো বড় প্রাপ্তি আমি তা ভাষায় প্রকাশ করতে পারবোনা। কারণ এর আগে আমি চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য বহুবার জাতীয় চলচিচত্র পুরস্কার পেয়েছি শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী হিসেবে। কিন্তু আমার অভিনয় জীবনের অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ চুড়ান্ত স্বীকৃতি হিসেবে পেলাম আজীবন সম্মাননা। দেশের বাইরে থেকেও অনেক সম্মাননা পেয়েছি। কিন্তু দেশের মধ্যে সর্বোচ্চ স্বীকৃতি পাওয়া সবচেয়ে সুখের, সবচেয়ে আনন্দের। আমার এই প্রাপ্তি আমার ভক্ত দর্শককে উৎসর্গ করলাম। সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন আল্লাহ যেন আমাকে সুস্থ রাখেন, ভালো রাখেন। যদি আবার চলচ্চিত্রে অভিনয় করতে হয় তবে আমার সঙ্গে মানানসই চরিত্রে অভিনয় করেই যেন দর্শকের সামনে আসতে পারি।ববিতা জানান চলচ্চিত্র জীবনে সমাজের প্রতি দায়বদ্ধতার স্থান থেকে তিনি অনেক সিনেমাতে বিনা পারিশ্রমিকেও অভিনয় করেছেন। সারা জীবন তিনি অভিনয়কেই ভালোবেসে চলচ্চিত্রকে ভালোবেসে চলচ্চিত্রেরই একজন নিবেদিত হয়ে কাজ করে গেলেন। ছবি ঃ মোহসীন আহমেদ কাওছার।