ঘুরে দাঁড়িয়ে চ্যালেঞ্জ জানাবে বাংলাদেশ: রাহানে

ঘুরে দাঁড়িয়ে চ্যালেঞ্জ জানাবে বাংলাদেশ: রাহানে

তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টিতে কেউ ভাবেনি টিম ইন্ডিয়াকে হারিয়ে সিরিজে লিড নেবে সফরকারী বাংলাদেশ। সিরিজের শেষ দুটি ম্যাচে একটু এদিক-ওদিক হলেই প্রথমবারের মতো ভারতের মাটিতে ভারতকে হারিয়ে সিরিজ জিততে পারতো টিম বাংলাদেশ। এবার সাদা পোশাকের লড়াইয়ের অপেক্ষা। দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে নামবে দুই দল।


আগামী ১৪ নভেম্বর ইন্দোরে হবে ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যকার প্রথম টেস্ট। আর ২২ নভেম্বর কলকাতায় অনুষ্ঠিত হবে ঐতিহাসিক দিবা-রাত্রির দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট।

টেস্টে সফরকারী বাংলাদেশকে হালকাভাবে নিচ্ছেন না ভারতের সহ-অধিনায়ক আজিঙ্কা রাহানে। তার মতে, বাংলাদেশ ঘুরে দাঁড়ানোর সুযোগ চাইবে। টেস্ট সিরিজটিকে দুই দলের জন্যই সমান লড়াইয়ের মঞ্চ হিসেবে দেখছেন রাহানে।

রাহানে সংবাদ মাধ্যমে জানান, ‘কোনো সন্দেহ নেই বাংলাদেশ ভালো দল। তারা একটা দল হিসেবেই নিজেদের দিনে মেলে ধরে। দলটির মধ্যে একতাবদ্ধ হয়ে খেলার চেষ্টা থাকে। আমরা অবশ্যই নিজেদের শক্তিমত্তা জানি, তবে প্রতিপক্ষকে কখনই ছোটো করে সেটা ভাবি না। আমরা বাংলাদেশকে সম্মান করেই মাঠে নামব।’

ভারতের মাটি যেকোনো সফরকারী দলের জন্যই কঠিন হয়ে থাকে। রাহানে আরও জানান, ‘দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে আগের সিরিজে আমরা যথেষ্ট ভালো খেলেছি। সেটা এখন অতীত। বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের প্রতিটি ম্যাচই আলাদা, প্রতিটি ম্যাচই গুরুত্বপূর্ণ। আমরা এখন ইন্দোর ম্যাচ নিয়েই ভাবছি। এরপর কলকাতার দিবারাত্রির টেস্ট নিয়ে ভাবার সময় পাব। আবারও বলছি, বাংলাদেশকে মোটেই আমরা হালকা করে নিচ্ছি না, তাদের প্রতি সম্মান রেখেই নিজেদের খেলাটা খেলব।’

ভারতের সহ-অধিনায়ক যোগ করেন, ‘বাংলাদেশ ঘুরে দাঁড়াতে চাইবে। তারা আমাদের চাপের মধ্যে ফেলতে চাইবে। আমি জানি বাংলাদেশ ইন্দোরের ম্যাচটি এবং যথাসম্ভব সিরিজটি জিততে চাইবে। অতীতের ম্যাচ (দ. আফ্রিকার বিপক্ষে) না ভেবে সম্পূর্ণ নতুন এই ম্যাচটি নিয়ে আমাদের ভাবতে হবে। ব্যক্তিগতভাবে আমি মনে করি, প্রতিটি সিরিজ আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জিং, বাংলাদেশও আমাদের চ্যালেঞ্জ জানাবে।’

বাংলাদেশের টেস্ট দল:
সাদমান ইসলাম, ইমরুল কায়েস, সাইফ হাসান, মুমিনুল হক (অধিনায়ক), লিটন দাস, মুশফিকুর রহিম, মোসাদ্দেক হোসেন, মাহমুদউল্লাহ, মেহেদী হাসান মিরাজ, মোহাম্মদ মিঠুন, তাইজুল ইসলাম, নাইম হাসান, মোস্তাফিজুর রহমান, আল-আমিন হোসেন, আবু জায়েদ, এবাদত হোসেন।