গুরুদাসপুরে মহিলা মেম্বরের বিরুদ্ধে কৃষকের জমির ধান কেটে নেয়ার অভিযোগ

গুরুদাসপুরে মহিলা মেম্বরের বিরুদ্ধে  কৃষকের জমির ধান কেটে নেয়ার অভিযোগ

গুরুদাসপুর (নাটোর) প্রতিনিধি : নাটোরের গুরুদাসপুরে কৃষকের জমির ধান কেটে সেই জমিতেই আবার জোরপূর্বক রসুন লাগানোর অভিযোগ উঠেছে চাপিলা ইউনিয়নের ৪, ৫, ৬নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত আসনের মহিলা ইউপি সদস্য রাহিমা বেগমের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার চাপিলা ইউনিয়নের বৃন্ডপাথুরিয়া গ্রামে। ভুক্তভোগী কৃষক মোঃ খলিল শেখ জানায়, খামারপাথুরিয়া মৌজায় অবস্থিত ১৫ কাঠা জমি যার হাল নং-৪২ বিগত ৩০ বছর ধরে সে ভোগ দখল করে আসছিল। কিন্তু গত এক বছর ধরে জোরপূর্বক তার জমি দখল করে চাষাবাদ শুরু করে মহিলা মেম্বরের শ্বশুর মোঃ ফালু শেখ। উচ্চ আদালতে মামলা চলমান থাকার পরেও মহিলা মেম্বরের নির্দেশে বিবাদী মো. ফালু শেখ ও তার সহযোগীরা জোরপূর্বক আমাদের জমি দখল করেছে। প্রতিবাদ করতে গেলে আমাদের তারা প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে আসছে। এ ঘটনায় মোঃ ফালু শেখসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে। সেই মামলা এখনও চলমান রয়েছে। অভিযুক্ত মহিলা ইউপি সদস্য রাহিমা বেগম বলেন, এই জমির প্রকৃত মালিক আমার শ্বশুর মোঃ ফালু শেখ। বিগত ৩০ বছর যাবৎ প্রতিপক্ষরা আমার শ্বশুরের জমি জোরপূর্বক দখল করে চাষাবাদ করেছে। গত এক বছর যাবৎ এই জমিতে আমরা চাষাবাদ শুরু করেছি। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ তমাল হোসেন জানান, ঘটনাস্থলে গিয়ে তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য সহকারী কমিশনার (ভূমি) কে বলা হয়েছে।