গান্ধী পরিবারের নিরাপত্তা নিয়ে লোকসভায় হট্টগোল

গান্ধী পরিবারের নিরাপত্তা নিয়ে লোকসভায় হট্টগোল

তিন দশকের বেশি সময় ধরে থাকা গান্ধী পরিবারের বিশেষ নিরাপত্তা সম্প্রতি প্রত্যাহার করে নিয়েছে মোদী সরকার। মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) এই সিদ্ধান্ত নিয়ে তুমুল হট্টগোল হয়েছে ভারতের লোকসভায়।


শীতকালীন অধিবেশনের দ্বিতীয় দিনে বিষয়টি নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর জবাব চান বিরোধীরা। এসময় মোদী অধিবেশনে উপস্থিত ছিলেন না। আর প্রবল হইচই-স্লোগানের মধ্যে অধিবেশন কক্ষ ছেড়ে বেরিয়ে যান অমিত শাহ। এর পরপরই ওয়াকআউট করে কংগ্রেস।

চলতি মাসেই কেন্দ্রের তরফ থেকে জানানো হয়, এবার থেকে এসপিজির (স্পেশাল প্রটেকশন গ্রুপ) পরিবর্তে জেড প্লাস নিরাপত্তা পাবেন গান্ধী পরিবারের তিন সদস্য সোনিয়া, রাহুল ও প্রিয়াঙ্কা। বিরোধীরা তখনই প্রশ্ন তোলেন, যে পরিবারের দু’জন সদস্য সন্ত্রাসবাদীদের হাতে প্রাণ হারিয়েছেন, কীভাবে সেই পরিবারের নিরাপত্তা কমানোর সিদ্ধান্ত নিল সরকার? 

এদিন অধিবেশন চলাকালে এই বিষয়টি নিয়েই সরব হয় কংগ্রেস। লোকসভায় স্লোগান দিতে থাকেন দলটির সংসদ সদস্যরা।
এসময় স্পিকার ওম বিড়লা তাদের বারবার জায়গায় ফিরে যেতে অনুরোধ করলেও তাতে কাজ হয়নি। একপর্যায়ে কংগ্রেস নেতারা ওয়াকআউট করেন।

১৯৮৪ সালে প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী হত্যার পরের বছরই প্রধানমন্ত্রী ও তার পরিবারের নিরাপত্তার জন্য ক্যাবিনেট সচিবের নির্দেশে বিশেষ বাহিনী এসপিজি তৈরি হয়। ১৯৮৮ সালের ২ জুন সংসদে ‘এসপিজি বিল’ পাশ করানো হয়। বর্তমানে ওই বাহিনীতে রয়েছেন তিন হাজারের বেশি সদস্য। নিরাপত্তা নিয়ে তাদের প্রশিক্ষণ বিশ্বের প্রথম সারির বলে ধরা হয়।