খালেদার সাক্ষাতের অনুমতি পেলেন আইনজীবীরা

খালেদার সাক্ষাতের অনুমতি পেলেন আইনজীবীরা

রাজধানীর নাজিমুদ্দিন রোডের পুরান কারাগারে বন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করার অনুমতি পেলেন তার আইনজীবী প্যানেলের সদস্যরা। শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) বিকেল ৪টা ২৫ মিনিটে কারা কর্মকর্তা হাসান বিএনপি চেয়ারপারসনের আইনজীবীদের জেলগেটের দিকে নিয়ে যান।

এর আগে দুপুর ২টা ৪০ মিনিট থেকে কারাফটকের সামনে অপেক্ষা করতে থাকেন খালেদার আইনজীবীরা। এরপর কারা কর্তৃপক্ষের অনুমতি পেয়ে খালেদার সঙ্গে দেখা করার অনুমতি পেয়ে কারাফটকের দিকে যান অপেক্ষারত ৫ আইনজীবী।

খালেদা জিয়ার আইনজীবী প্যানেলের সদস্য হলেন- সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল এ জে মোহাম্মদ আলী, অ্যাডভোকেট আব্দুর রেজ্জাক খান, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার।

কারাফটকের সামনে ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ সাংবাদিকদের বলেন, আইন অনুসারে ১৮ ক্যাটাগরির কারাবন্দি অটোম্যাটিক্যালি ডিভিশন পান। এর জন্য আলাদা করে আবেদনের প্রয়োজন হয় না। কিন্তু অত্যন্ত দুঃখের বিষয় খালেদা জিয়াকে কারাগারে আনার পর এখনও ডিভিশন দেওয়া হয়নি।

‘যেখানে তাকে রাখা হয়েছে এটি একটি নির্জন ও পরিত্যক্ত ভবন। এটা কোনো কারাগার নয়। এখানে ফাঁসির আসামিদের যেভাবে রাখা হয় তাকেও সেভাবেই রাখা হয়েছে। এটা অত্যন্ত দুঃখজনক।’ তিনি বলেন, রায়ের নথিপত্র পেলে আমরা দ্রুত আদালতে আপিল করবো।

মওদুদ বলেন, আমরা নেত্রীর (খালেদার জিয়া) সঙ্গে দেখা করতে এসেছি। তার সঙ্গে দেখা করে শলা-পরামর্শ করবো। তার কোনো নির্দেশনা আছে কিনা তা শুনবো। এর আগে খালেদা জিয়ার ডিভিশন চেয়ে আইনজীবীদের আরও একটি দল কারাফটকে যান। তবে কারা কর্তৃপক্ষের কোনো কর্মকর্তার সঙ্গে তাদের দেখা হয়নি।  

পরে সেখানে দায়িত্বরত পুলিশ কর্মকর্তাদের পরামর্শে কারা অধিদফতরে গেলেও আবেদন জমা দিতে পারেননি তারা। বৃহস্পতিবার (০৮ ফেব্রুয়ারি) জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। এরপরই তাকে রাখা হয়েছে পুরাতন ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে।

একই মামলায় ১০ বছরের দণ্ড পেয়েছেন বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান ও খালেদাপুত্র তারেক রহমানসহ আরও পাঁচজন।