খালেদা জিয়ার মুক্তিতে আন্দোলনের বিকল্প নেই : ড. মোশাররফ

খালেদা জিয়ার মুক্তিতে আন্দোলনের বিকল্প নেই : ড. মোশাররফ

বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি এবং নির্বাচনকালীন নির্দলীয় সরকারের দাবি আদায়ে আন্দোলন-সংগ্রামের কোনো বিকল্প নেই বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন। তিনি বলেন, বেগম জিয়ার মুক্তির জন্য আমরা আইনি লড়াইয়ের পাশাপাশি শান্তিপূর্ণ নিরীহ কর্মসূচি পালন করে যাচ্ছি। তবে অনেকেই কঠোর কর্মসূচির কথা বলছেন। সময় হলে কঠোর কর্মসূচি দেওয়া হবে। এজন্য আমাদের প্রস্তুতি নিতে হবে।

সোমবার বিকেলে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের সেমিনার হলে জাতীয়তাবাদী কৃষক দলের উদ্যোগে এক আলোচনা সভা, দোয়া ও ইফতার অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন ড. মোশাররফ। বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান বীরউত্তমের ৩৭তম শাহাদাৎবার্ষিকী এবং চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে এই অনুষ্ঠান হয়। খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, বিচার বিভাগ স্বাধীন নয়।

সে কারণে শুধু আইনি প্রক্রিয়ায় বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি হবে বলে মনে হয় না। এজন্য আন্দোলন-সংগ্রামের মধ্য দিয়ে স্বৈরাচারি সরকারকে বিদায় করতে হবে। এই সরকারের বিদায় ছাড়া বেগম জিয়ার মুক্তি হবে না। সভাপতির বক্তব্যে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও কৃষক দলের সাধারণ সম্পাদক শামসুজ্জামান দুদু বলেন, বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য আইনি লড়াইয়ের পাশাপাশি আন্দোলন-সংগ্রামও প্রয়োজন।

রাজপথে এই ইস্যুর ফয়সালা করতে হবে। তিনি আরো বলেন, ঈদের পরে নেতৃবৃন্দ আন্দোলনের যে কর্মসূচি দিবেন সেটা আমাদের বাস্তবায়ন করতে হবে। কৃষক দলের সহ-দফতর সম্পাদক এস কে সাদীর পরিচালনায় এতে আরো বক্তব্য দেন-বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, কৃষক দলের এমএ তাহের, তকদির হোসেন মো. জসীম, বগুড়া জেলা বিএনপির শিশুবিষয়ক সম্পাদক মোশাররফ হোসেন চৌধুরী প্রমুখ নেতৃবৃন্দ। ইফতারের আগে বেগম খালেদা জিয়ার সুস্থতা ও মুক্তি এবং দেশের অগ্রগতি ও সমৃদ্ধি কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।