* হেলথ বুলেটিনের দাবি

খালেদা জিয়াকে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিচ্ছে সরকার : বিএনপি

খালেদা জিয়াকে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিচ্ছে সরকার : বিএনপি

স্টাফ রিপোর্টার : সরকার ছলচাতুরি করে খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি। দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এই অভিযোগ করে বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসনকে চিকিৎসা না দিয়ে তিলে তিলে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দেওয়া হচ্ছে। তার শারীরিক অবস্থা আরও খারাপ হয়েছে। বেগম জিয়ার স্বাস্থ্যের নিত্যকার তথ্য জানাতে সরকারের প্রতি দাবি জানান তিনি। গতকাল শুক্রবার সকালে রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন মির্জা ফখরুল। দুর্নীতির দুই মামলায় দন্ডিত হয়ে এক বছরের বেশি সময় ধরে কারাগারে রয়েছেন খালেদা জিয়া। তিনি এখন চিকিৎসার জন্য বিএসএমএমইউতে রয়েছেন। সরকার খালেদা জিয়ার জামিনে বাধা দিয়ে তাকে কারাগারে আটকে রাখতে চাইছে বলে সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করেন বিএনপি মহাসচিব। তিনি বলেন, সরকার ছলচাতুরির আশ্রয় নিয়ে বেগম জিয়ার মুক্তিতে তার আইনগত যে প্রাপ্যতা-সেটাকে উদ্দেশ্যমূলকভাবে বিলম্বিত করছে এবং আদালতের ওপর হস্তক্ষেপ করার চেষ্টা করছে। বিএনপি চেয়ারপারসনকে এভাবে আটক করে রেখে, তাকে চিকিৎসা না দিয়ে তিলে তিলে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দেওয়া হচ্ছে। এ সময় মির্জা ফখরুল প্রশ্ন রেখে বলেন, তারা (সরকার) কি খালেদা জিয়াকে এইভাবে বিনা চিকিৎসায় কারাগারের মধ্যেই মেরে ফেলতে চায়, তাকে হত্যা করতে চায়? খালেদা জিয়ার জামিন আটকে সরকার তার সাংবিধানিক অধিকার লঙ্ঘন করছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

 বিএনপি চেয়ারপারসনকে মুক্তি দিয়ে তার চিকিৎসার সুযোগ দেওয়া না হলে যেকোনো ঘটনার জন্য সরকারকে দায়ী হতে হবে বলে হুঁশিয়ারি দেন বিএনপি মহাসচিব। এক প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবির সঙ্গে বিএনপির সংসদে যোগদানের কোনো সম্পর্ক নেই। বেগম জিয়ার মুক্তি তো কনডিশনাল হবে না, আইনগতভাবে হবে। জামিনে মুক্তি তার পাপ্য। আমরা সেটা চাই। বগুড়া-৬ আসনের উপ-নির্বাচনে দলের মনোনয়নের প্রসঙ্গটি কৌশলে এড়িয়ে গিয়ে বিএনপি মহাসচিব বলেন, আমি দেশের বাইরে ছিলাম। বৃহস্পতিবারই টেলিভিশনে দেখলাম, সেখানে দু’জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। বিএসএমএমইউতে চিকিৎসাধীন খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা আরও খারাপ হয়েছে বলে দাবি করেন ফখরুল। তিনি বলেন, বেগম জিয়ার শরীর-স্বাস্থ্য এতো খারাপ হয়ে গেছে যে, উনি বিছানা থেকে উঠতে পারেন না। তিনি অনিয়ন্ত্রিত ডায়াবেটিসে ভুগছেন। এখন তাকে ইনসুলিন নিতে হচ্ছে। ইনসুলিন নেওয়ার পরও তার ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে আসছে না।

 বিএসএমএমইউতে যে কক্ষে বিএনপি চেয়ারপারসন রয়েছেন, তার পরিসর ছোট বলেও জানান ফখরুল। খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের নিত্যকার তথ্য জানাতে সরকারের প্রতি দাবি জানান বিএনপি মহাসচিব। তিনি বলেন, কারাবন্দি বেগম জিয়ার স্বাস্থ্যের ব্যাপারে আমরা উদ্বিগ্ন। তাই সরকারের উচিত ছিল খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের অবস্থা জানিয়ে বুলেটিন দেয়া। কিন্তু আজ পর্যন্ত তারা এমন কিছু করেনি। সদ্য অনুষ্ঠিত ভারতের নির্বাচন নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, এটা নিয়ে পরে দলের পক্ষ থেকে বিবৃতি দেওয়া হবে। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন- দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য জমিরউদ্দিন সরকার, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান ডা. জাহিদ হোসেন, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মনিরুল হক চৌধুরী ও আবদুল কাইয়ুম।