খালেদা জিয়াকে কারাগারে হত্যার নীলনকশা করছে সরকার : রিজভী

খালেদা জিয়াকে কারাগারে হত্যার নীলনকশা করছে সরকার : রিজভী

স্টাফ রিপোর্টার : ভারতের সাথে অসম চুক্তি ও বুয়েটছাত্র আবরার ফাহাদকে হত্যার প্রতিবাদে এবং বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে রাজধানীতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে জাতীয়তাবাদী মৎস্যজীবী দল। গতকাল শুক্রবার সকালে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে মিছিলটি শুরু হয়ে নাইটিঙ্গেল মোড় ঘুরে আবারও কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিকট এসে শেষ হয়। বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর নেতৃত্বে মিছিলে মৎস্যজীবী দলের যুগ্ম-আহবায়ক নাদিম চৌধুরী, অধ্যক্ষ সেলিম মিয়া, জাকির হোসেন খান, ওমর ফারুক পাটোয়ারী, লোকমান হোসেন হাওলাদার, শাহ আলম, জহিরুল ইসলাম বাশার, এম এ হান্নান, কবির উদ্দিন মাস্টার, সাইদুল ইসলাম টুলু প্রমুখ নেতৃবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন।

 মিছিল শেষে সংক্ষিপ্ত পথসভায় সভাপতিত্ব করেন মৎস্যজীবী দলের আহ্বায়ক রফিকুল ইসলাম মাহতাব। সংগঠনের সদস্য সচিব আব্দুর রহিমের সঞ্চালনায় এতে রুহুল কবির রিজভী বলেন, দেশের সর্বস্তরের মানুষের অব্যাহত দাবি সত্ত্বেও শারীরিকভাবে গুরুতর অসুস্থ বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিচ্ছেন না প্রধানমন্ত্রী। সরকার দেশনেত্রীকে কোনোভাবেই মুক্তি না দিয়ে কারাগারে হত্যার নীলনকশা বাস্তবায়নে জোরালো তৎপরতা চালাচ্ছে। এখন আওয়ামী লীগের নেতারা প্রকাশ্য জনসমাবেশে বুক ফুলিয়ে ঘোষণা করছেন- বেগম খালেদা জিয়াকে আমৃত্যু কারাগারে বন্দি রাখা হবে। এ সময় অবিলম্বে খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবি পুনর্ব্যক্ত করেন তিনি।

 বুয়েটছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যাকান্ডের প্রসঙ্গ টেনে রিজভী বলেন, আবরার ফাহাদ হত্যা নিছক একটি হত্যাকান্ড নয়; আমাদের রাষ্ট্র, সমাজ ও চিন্তা-চেতনায় যে পচন ধরেছে, আবরার হত্যা তারই নগ্ন বহিঃপ্রকাশ। আর আবরারের মৃত্যু কোনো সাধারণ মৃত্যু নয়। তার মৃত্যু দেশপ্রেমিক জনগণকে একটি সুস্পষ্ট বার্তা দিয়েছে, তা হলো- সাহসিকতার সাথে বাংলাদেশের স্বার্থ রক্ষায় ঐক্যবদ্ধ হয়ে বর্তমান জুলুমবাজ সরকারের বিরুদ্ধে সোচ্চার হওয়া। আর এই বার্তা থেকেই বিএনপিসহ সব রাজনৈতিক দল, সংগঠন ও সর্বস্তরের মানুষ আবরার হত্যাকান্ডের বিরুদ্ধে প্রতিবাদে সোচ্চার হয়েছে। শহীদ আবরার এখন দেশপ্রেমের প্রতীক।