ক্ষমতায় গেলে বেকার ভাতা চালু করা হবে: বিএনপি

ক্ষমতায় গেলে বেকার ভাতা চালু করা হবে: বিএনপি

 ক্ষমতায় গেলে শিক্ষাখাতে জিডিপির ৫ শতাংশ ব্যয় করা হবে বলে লিখিত ইশতেহারে জানিয়েছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি।

একইসঙ্গে একটি পৃথক শিক্ষা চ্যানেল চালু করা হবে ও এক কোটি নতুন কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা হবে। আর কর্মসংস্থান না হওয়া পর্যন্ত বেকার ভাতা দেওয়ার কথাও ইশতেহারে বলেছে দলটি।

মঙ্গলবার (১৮ ডিসেম্বর) সকালে রাজধানীর লেকশোর হোটেলে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে লিখিত বক্তব্যে বিএনপি মহাসচিব ফখরুল ইসলাম আলমগীর দলের নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করেন।

ফখরুল বলেন, আমরা ক্ষমতায় গেলে উচ্চতর পর্যায়ের শিক্ষা হবে জ্ঞান, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির উৎকর্ষে সমৃদ্ধ। বিষয়ভিত্তিক শিক্ষা, প্রশিক্ষণ ও গবেষণার ওপর গুরুত্ব দেওয়া হবে।

তিনি বলেন, আমরা সরকার গঠন করতে পারলে শিক্ষাখাতে জিডিপির ৫ শতাংশ ব্যয় করা হবে। শিক্ষার মানোন্নয়ন ও সম্প্রসারণের জন্য একটি পৃথক শিক্ষা চ্যানেল চালু করা হবে। স্বল্প আয়ের পরিবারের ছাত্রছাত্রীদের জন্য স্বল্প সুদে শিক্ষা ঋণ চালু করা হবে।

লিখিত বক্তব্যে বিএনপি মহাসচিব আরও বলেন, শিক্ষার ওপর থেকে সব ধরনের ভ্যাট বাতিল করা হবে। ভ্যাটবিরোধী, কোটা সংস্কার এবং নিরাপদ সড়কের আন্দোলনে ক্ষতিগ্রস্ত শিক্ষার্থীদের সব মামলা প্রত্যাহার এবং ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে। এক বছরব্যাপী অথবা কর্মসংস্থান না হওয়া পর্যন্ত বেকারদের ভাতা দেওয়া হবে।

অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিসহ তরুণ প্রজন্মকে অগ্রাধিকার দেওয়ার পাশাপাশি বিচার বিভাগের স্বাধীনতা, মত প্রকাশের স্বাধীনতা, ক্ষমতার বিকেন্দ্রীকরণসহ ১৯ দফা ইশতেহার ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি)।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে ক্ষমতায় গেলে সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে এই অঙ্গীকার বাস্তবায়ন করবে দলটি।