ক্রিস্টাল প্যালেসের কাছে হেরে বসলো ম্যানইউ

ক্রিস্টাল প্যালেসের কাছে হেরে বসলো ম্যানইউ

প্রথম ম্যাচে চেলসিকে ৪-০ গোলে হারিয়ে মৌসুম শুরু করায় সবাই ভেবেছিল ম্যানইউর হারানো ঐতিহ্য হয়তো এবার ফিরতে চলেছে ওলে গানার সোলসায়েরের হাত ধরে। কিন্তু পরের ম্যাচেই তারা উলভারহ্যাম্পটনের সঙ্গে ধাক্কা খায় ১-১ গোলে ড্র করে। কিন্তু পরের ম্যাচে ঘুরে দাঁড়ানো তো দুরে থাক, হেরেই বসলো ম্যানইউ। এবার নিজেদের মাঠেই হেরে বসলো তারা ক্রিস্টাল প্যালেসের কাছে ২-১ গোলের ব্যবধানে।

মার্কাস রাশফোর্ডের পেনাল্টি নষ্ট, পোস্টের নিচে শেষমুহূর্তে ডি গিয়ার ভুলেই মূলতঃ এভাবে পরাজয় বরণ করতে হলো রেড ডেভিলদের।

৩২ মিনিটে জর্ডান আয়েয়ুর গোলে এগিয়ে যায় ক্রিস্টাল প্যালেস। এরপর পেনাল্টি থেকে দলকে সমতায় ফেরানোর সুযোগ পেলেও সেটা নষ্ট করেন ফেলেন ম্যানইউ স্ট্রাইকার মার্কাস রাশফোর্ড।


৮৯ মিনিটে ড্যানিয়েল জেমস ম্যানইউ’কে সমতাসূচক গোল এনে দিলেও অতিরিক্ত সময় বক্সের মধ্যে বাঁ-পায়ের কোনাকুনি শটে ডি গিয়াকে পরাস্ত করে ক্রিস্টাল প্যালেসকে জয় এনে দেন প্যাট্রিক ফন আনহোল্ট।

কোচ ওলে গানার সোলসায়ের আগেরদিন বলেছিলেন, তার দলে পেনাল্টি কিক নেবেন হয়তো পল পোগবা, নয়তো মার্কাস রাশফোর্ড। কিন্তু আগের ম্যাচেই উলভসের বিরুদ্ধে পেনাল্টি নষ্ট করেছিলেন পোগবা। যে কারণে ফরাসি তারকা যথেষ্ট সমালোচনা হলো। কিন্তু শনিবার ৭০ মিনিটে পেনাল্টি নিতে গিয়ে আবারও মিস। এবার মিস করলেন কোচের আরেক আস্থার নাম রাশফোর্ড। তার স্পট কিকটি ফিরে এলো পোস্টে ধাক্কা খেয়ে। সেই ধাক্কা শেষ পর্যন্ত সামলাতে পারেনি ম্যানইউ।

শেষ যে গোলটি হজম করে ম্যানইউ, তাতে শুধু গোলরক্ষক ডি গিয়ারই দোষ নয়, সমান অপরাধী পল পগবাও। ফরাসি তারকা নিজেদের গোল পোস্টের সামনে একটা ভুল পাস বাড়িয়ে দিলে সেটা পেয়ে যায় অন অ্যানহল্ট এবং সেটিই গোল। শুধু তাই নয়, পগবার খেলায় যারপরনাই হতাশ ম্যানইউ সমর্থকরা।

কোচ সোলসায়েরের সান্তনা একুশ বছর বয়সী ড্যানিয়েল জেমসের বাঁক খাওয়ানো শটের গোল। এই জেমসই এখন ম্যানইউকে স্বপ্ন দেখাচ্ছে।

ম্যানইউর হারের দিনে জয় নিয়ে ফিরলো চেলসি। নতুন কোচ ফ্রাঙ্ক ল্যাম্পার্ডকে স্বস্তি এনে দিচ্ছেন তার নতুন খেলোয়াড়রা। একুশ বছরের ট্যামি আব্রাহাম শনিবার জোড়া গোল করে ল্যাম্পার্ডের চেলসিকে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে প্রথম জয় উপহার দিলেন। 
নরউইচের বিরুদ্ধে ‘দ্য ব্লুজ’রা জিতল ৩-২ গোলের ব্যবধানে। ৩ মিনিটেই ট্যামি গোল করেন। গোল করলেন চেলসির আরেক তরুণ, ২০ বছর বয়সী ম্যাসন মাউন্টও। নরউইচ সিটির হয়ে গোল করেন টড ক্যান্টওয়েল এবং টেমু পুক্কি।