‘ক্রিকেটে নতুন সূর্যোদয়’

‘ক্রিকেটে নতুন সূর্যোদয়’

‘আকবর দ্য গ্রেট’। বিশ্বকাপ জয়ের পর যুব দলের অধিনায়ক আকবর আলিকে এভাবেই পরিচয় করিয়ে দিয়েছে বাংলাদেশের মিডিয়া। আকবর আলির অসাধারণ বীরত্বপূর্ণ ব্যাটিংয়ের ওপর ভর করে ভারতের মতো পরাক্রমশালী দলকে হারিয়ে বিশ্বকাপের ট্রফি ঘরে তুললো বাংলাদেশ।

বিশ্বজয়ী বীররা দক্ষিণ আফ্রিকার সেনওয়েজ পার্কে নতুন ইতিহাস লেখার পর অবশেষে দেশে ফিরে এসেছেন আজ বিকেল পৌনে ৫টায়। সেখানে ফুল দিয়ে একদফা বরণ করা হলো বিশ্বজয়ী বীরদের। এরপর মিরপুরে আবারও বরণ করার পালা। এখানে লাল গালিচা সংবর্ধনা দিয়ে, কেক কেটে উদযাপন করা হলো বিশ্বজয়ের।

বাংলাদেশ ক্রিকেটে এখন পর্যন্ত অনেক রথি-মহারথির আগমন ঘটেছে। সাকিব-তামিম-মাশরাফিরা নিঃসন্দেহে এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের ক্রিকেটে সেরা তারকা। বিশ্ব ক্রিকেটেও অন্যতম সেরা। কিন্তু তাদের মতো ক্রিকেটাররাও যেটা পারেননি, সেটা করে দেখিয়েছেন আকবর আলিরা।

ফাইনালের মতো মহা উত্তেজনা এবং স্নায়ুক্ষয়ী ম্যাচে চাপ সামলে নিয়ে যেভাবে আকবর আলি ধৈর্য না হারিয়ে ধীরে ধীরে ব্যাটিং করে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছেড়েছেন, তা বিশ্ব ক্রিকেটে অন্যতম সেরা ফিনিশারের বিজ্ঞাপন হয়ে থাকবে। থাকবে ক্ল্যাসিক ক্রিকেটের বিজ্ঞাপন হয়েও।

এমন একটি দলের গর্বিত মালিক এখন বাংলাদেশ ক্রিকেট। যাদের বরণ করে নিতে এমনিতেই উন্মুখ হয়েছিল বাংলাদেশের ক্রিকেটপাগল জনগণ। শুধু ভক্ত-সমর্থকরাই নন, বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের কর্মকর্তারাও ছিলেন উন্মুখ হয়ে, কখন বিশ্বজয়ীরা দেশে আসবে, কখন তাদের বরণ করে নেব- এই চিন্তায়।

অবশেষে বিশ্ববিজয়ী বীরের দল আকবর আলিরা এলেন। মিরপুরে তাদের সংবর্ধনা জানানো হবে, বরণ করে নেয়া হবে কেক কেটে। তার আগে মিডিয়ার সামনে নিজেদের অনুভূতি জানালেন বিসিবির বেশ কয়েকজন কর্মকর্তা। তাদের একটাই কথা, ‘বাংলাদেশের ক্রিকেটে নতুন সূর্যোদয় ঘটেছে। এখন এই উদিত সূর্যের পরিচর্যা করতে হবে ভালোভাবে। সামনে এগিয়ে নিতে হবে বাংলাদেশের ক্রিকেটকে।’


মিডিয়ার সামনে উদ্ভাসিত সাফল্য এবং যুবাদের বিশ্বসেরা হওয়া নিয়ে কথা বলেন বিসিবি পরিচালক, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির, আকরাম খান, নাঈমুর রহমান দুর্জয়, জালাল ইউনুস ও নাদের চৌধুরী।

তাদের সবার কথার একটাই ভাব ছিল যে, ‘বাংলাদেশের ক্রিকেট ইতিহাসের অবিস্মরণীয় অর্জন। ক্রিকেটে নতুন সূর্যের দেখা। তবে এই সাফল্যকে কাজে লাগিয়ে দেশের ক্রিকেট উত্তরণ ও উন্নয়নে কার্যকর পদক্ষেপ নেয়াই হবে আগামী দিনের চ্যালেঞ্জ। বোর্ড সে চিন্তা-ভাবনাই করছে এখন থেকে।’