ক্যান্সার চিকিৎসায় ভিটামিন সি ব্যবহারে গুরুত্বারোপ

ক্যান্সার চিকিৎসায় ভিটামিন সি ব্যবহারে গুরুত্বারোপ

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) উপ-উপাচার্য (গবেষণা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মো. শহীদুল্লাহ শিকদার বলেছেন, আধুনিক চিকিৎসা ব্যবস্থায় জটিল রোগের কার্যকর চিকিৎসা দেয়া সম্ভব হচ্ছে। তবে চিকিৎসার ব্যয় বেশি হওয়ায় এবং ওষুধ প্রয়োগ পরবর্তী এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় চিকিৎসার কাঙ্ক্ষিত ফল লাভ করা সম্ভব হচ্ছে না।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুকন্যা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অন্যান্য অনেক সেবার মতো চিকিৎসাসেবায়ও অনেক সাফল্য অর্জিত হয়েছে। অন্যান্য অনেক রোগ চিকিৎসার মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণ সম্ভব হলেও ক্যান্সারের প্রাদুর্ভাব বেশি পরিলক্ষিত হচ্ছে।


‘মানুষের জীবনযাত্রার মান বৃদ্ধি পাওয়ায় স্বাভাবিকভাবেই ক্যান্সার চিকিৎসার ক্ষেত্রে একটি কার্যকর ব্যবস্থা সবারই কাঙ্ক্ষিত। কেমোথেরাপির উচ্চমূল্য এবং এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া সেই আকাঙ্ক্ষা পূরণে অন্তরায় হিসেবে কাজ করে। কাজেই ভিটামিন সি অধিক মাত্রায় প্রয়োগের মাধ্যমে ক্যান্সারের চিকিৎসা ব্যয় হ্রাস করা এবং এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া কমিয়ে আনা সম্ভব।’

কাজেই চিকিৎসার ক্ষেত্রে রোগী ও স্বাস্থ্য ব্যবস্থার অন্য অংশীদারদের মাঝে ক্যান্সারের চিকিৎসায় অধিকমাত্রায় ভিটামিন সি’র ব্যবহার বৃদ্ধি অপরিহার্য কর্তব্য- বলেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, ভিটামিন সি’র দামও কম এবং এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই বললেই চলে। বাংলাদেশের মতো দেশে ক্যান্সারের চিকিৎসায় ভিটামিন সি-এ অধিকমাত্রায় ব্যবহারের বিষয়টি জনপ্রিয় ও সফল করতে গণমাধ্যম গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে।

সোমবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের অনকোলজি ভবনের পঞ্চম তলায় অনকোলজি (ক্যান্সার) বিভাগের উদ্যোগে ‘এ নিউ এ্যাপ্রোচ ফর অফটিমাইজিং লো কস্ট, লো টক্সিসিটি ক্যান্সার ট্রিটমেন্ট উয়িথ হাইডোজ ভিটামিন-সি’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপ-উপাচার্য এসব কথা বলেন।

অনকোলজি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. সারওয়ার আলমের সভাপতিত্বে কি-নোট উপস্থাপন করেন ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজি, সিডনি’র লেকচারার অ্যান্ড রিসার্চ গ্রুপ লিডার ডা. মার্টিন পি. স্টেয়ার্ট। বক্তব্য রাখেন অস্ট্রেলিয়ার নর্দার্ন ইউনিভার্সিটির পাবলিক হেলথ বিষয়ক প্রফেসর ডা. মিল্টন হাসনাত।

সেমিনারে সমন্বয়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন বিএসএমএমইউ অনকোলজি (ক্যান্সার) বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. মো. নাজির উদ্দিন মোল্লাহ ও সহযোগী অধ্যাপক ডা. সাদিয়া শারমিন