কোরবানির ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় : বিদ্রুপের শিকার পাকিস্তান অধিনায়ক

কোরবানির ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় : বিদ্রুপের শিকার পাকিস্তান অধিনায়ক

ঈদ-উল আযহা আসলে কোরবানির পশুর ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড করা একটা রীতিতে পরিণত হয়েছে যেন। ঈদ-উল আযহার সময় সোশ্যাল মিডিয়াজুড়ে শুধু কোরবানির পশুর ছবি। অনেকে ভিডিও’ও দিয়ে থাকেন।

এই ট্রেন্ড থেকে বাদ যান না ক্রিকেটাররাও। বিশেষ করে পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা। আগেও দেখা গেছে কোরবানির পশুর ছবি কিংবা ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছেড়েছেন তারা। আবার এসব ছবি দেয়ার কারণে বিদ্রুপেরও শিকার হচ্ছেন।


এবার যেমনটা করলেন পাকিস্তানের অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ। ঈদ-উল আযহা উপলক্ষে কেনা কোরবানির পশুর ছবি এবং ভিডিও তিনি পোস্ট করেছেন সোশ্যাল মিডিয়া টুইটারে।

সরফরাজ আহমেদের পোস্ট করা ছবি এবং ভিডিও মুহূর্তেই ভাইরাল হয়ে গেলো নেট দুনিয়ায়। শুধু তাই নয়, এ নিয়ে তৈরি হয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। তবে বাজে প্রতিক্রিয়া ব্যাক্ত করছে সবচেয়ে বেশি যারা সব সময় কোরবানির বিরোধীতা করেন, তারাই। সরফরাজ আহমেদের পোস্ট করা ভিডিও’র প্রতিবাধে তার ওপর কঠোর শাস্তি আরোপের দাবি পর্যন্ত জানিয়েছে প্রতিক্রিয়াশীলরা।

সরফরাজ টুইটারে দুটি গরুর ছবি এবং ভিডিও প্রকাশ করে উর্দু ভাষায় লিখেছেন, ‘তৈয়ারিয়ান মুকাম্মাল হে.. স্টেজ সেট হে.., ঈদ-ই-কুরবান কা ইনতিজার। কুরবান হোনে কো হামারি বখরি ভি তৈয়ার আওর বেইতাব হে। আল্লাহ তায়ালা সব কি কুরবানি আওর তৈয়ারিয়ান কবুল ফরমায়ে।’
টুইটারে সরফরাজের এই পোস্টকে অনেকেই বলছেন, লোক দেখানো। সাউথ এশিয়া ওয়াচ নামে একটি প্রতিষ্ঠান টুইটারেই লিখেছে, ‘এটা হচ্ছে পাবলিসিটি স্টান্ট।’ অলিভার গ্রিন নামে একটি আইডি তো রীতিমত শুকরের ছবি দিয়ে সরফরাজকে বিদ্রুপ করতেও ছাড়েলো না।