কোটা আন্দোলনের নেতা রাশেদ খাঁন রিমান্ডে

কোটা আন্দোলনের নেতা রাশেদ খাঁন রিমান্ডে

ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে কটূক্তির অভিযোগে তথ্যপ্রযুক্তি আইনে দায়ের করা মামলায় সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনরত ‘বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের’ যুগ্ম-আহ্বায়ক রাশেদ খাঁনের ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

সোমবার (২ জুলাই) রাশেদকে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করে ১০ দিনেের রিমান্ডের আবেদন করেন ডিবি পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) সজীবুজ্জমান।

এ সময় অ্যাডভোকেট জাহিদুর রহমান ও মো. নুরুদ্দিন রিমান্ড বাতিল করে রাশেদের জামিনের আবেদন করেন। শুনানি শেষে মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট রায়হান উল ইসলাম ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

রোববার (১ জুলাই) রাজধানীর মিরপুর এলাকা থেকে রাশেদকে গ্রেফতার করে ডিবি পুলিশ।

তার আগে রোববার সকালে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির আইন বিষয়ক সম্পাদক আল-নাহিয়ান খান বাদী হয়ে শাহাবাগ থানায় আইসিটি আইনে মামলাটি দায়ের করেন। রাশেদ খাঁন ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে কটূক্তি করেছেন বলে মামলায় অভিযোগ করা হয়।

মামলায় বলা হয়, গত ২৭ ‍জুন ফেইবুক লাইভে এসে রাশেদ খাঁন নাশকতা ছড়ানোর উদ্দেশ্যে সুস্পষ্টভাবে মিথ্যা ও মানহানিকর বক্তব্য দেন। এক পর্যায়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে কটূক্তিও করেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ সারাদেশের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটানোর জন্যই এসব মিথ্যা তথ্য ও গুজব ছড়ানো হয় মর্মে মামলায় দাবি করা হয়।