কেটে গেল কাবেরীর জন্মদিন

কেটে গেল কাবেরীর জন্মদিন

বিনোদন প্রতিবেদক : উপমহাদেশের সবচেয়ে বেশি সিনেমার নারী প্রযোজক মালতি দেবী’র মেয়ে চিত্রনায়িকা কাবেরীর জন্মদিন ছিলো গতকাল। বরেণ্য চলচ্চিত্র পরিচালক সুভাষ দত্তের হাত ধরেই ‘বলাকা মন’ সিনেমাতে কাবেরীর অভিষেক হয়। অভিনয়ের শুরুর দিকে তার অভিনীত আলোচিত হচ্ছে এহতেশামের ‘আলো ছায়া’, কামাল আহমেদ’র ‘অনুরাগ’, মোস্তফা আনোয়ারের ‘মনি মালা’, মোস্তফা মেহমুদের ‘ভাই বোন’ ও ‘অবাক পৃথিবী’সহ ১১১টি সিনেমাতে কাবেরী অভিনয় করে দর্শকের কাছ থেকে পেয়েছেন ভালোবাসা, শ্রদ্ধা। কাবেরীর স্বামী প্রদীপ দে একজন প্রযোজক, পরিচালক, পরিবেশক  ও প্রদর্শক। কাবেরী ও প্রদীপ দম্পতির দুই ছেলে মেয়ে। ছেলে সুমন দে একজন চলচ্চিত্র প্রযোজক। তার প্রযোজিত উল্লেখযোগ্য সিনেমাগুলো হচ্ছে  ‘রঙ্গিন নবাব সিরাজউদ্দৌলা’, ‘আমার প্রাণের স্বামী’ ও ‘এক টাকার বউ’। কাবেরীর মেয়ে প্রিয়াংকা দে ই-িপে-েন্ট ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ’র ডিরেক্টর অব এডমিন হিসেবে কর্মরত। কাবেরীর ছেলে সুমন দে ১৯৮৪ সালে ‘ন্যায় বিচার’ সিনেমাতে অভিনয়ের জন্য শিশুশিল্পী হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে ভূষিত হন। আবার পি এ কাজল পরিচালিত সুমন দে প্রযোজিত ‘এক টাকার বউ’ সিনেমাতে গান গেয়ে কনকচাঁপা শ্রেষ্ঠ সঙ্গীতশিল্পী হিসেবে এবং দীঘি শিশু শিল্পী হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান।

 প্রযোজক সুমন দে জানান তাদের পরিবারের পাঁচ জেনারেশন সিনেমা ব্যবসার সাথেই সম্পৃক্ত যা বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে বিরল দৃষ্টান্ত। কাবেরীর মা মালতী দেবীও সিনেমাতে অভিনয় করেছেন। জহির রায়হান, খান আতা, ঋত্বিক ঘটক’সহ আরো অনেকের নির্দেশনায় তিনি সিনেমাতে অভিনয় করেছেন। তার অভিনীত সিনেমার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে ‘সুয়োরানী দুয়োরানী’, ‘তিতাস একটি নদীর নাম’, ‘জীবন থেকে নেয়া’, ইত্যাদি। কাবেরীর ভাই উত্তম আকাশ এদেশের একজন স্বনামধন্য চলচ্চিত্র পরিচালক। মালতী দেবী’র প্রযোজনা সংস্থার নাম ‘উত্তম চিত্রকথা’। কাবেরীর ছোট বোন শুভ্রাও ছিলেন সিনেমার নায়িকা। তার বাবা অজিত কুমার দে ছিলেন বরেণ্য চলচ্চিত্রকার খান আতাউর রহমানের সিনেমার স্থির চিত্রগ্রাহক।  নায়ক ফারুক ও সোহেলরানা একসঙ্গে একটি সিনেমাতেই অভিনয় করেছেন। উত্তম চিত্রকথা প্রযোজিত ‘দুষ্টু ছেলে মিষ্টি মেয়ে’ সিনেমাতেই তাদের একসঙ্গে দেখা গেছে। এটি নির্মাণ করেছিলেন উত্তম আকাশ।  কাবেরীর ছেলে সুমন দে’র প্রযোজনা সংস্থা হচ্ছে ‘জয় ফিল্মস’ ও ‘ঋদ্ধি টকিজ’। চিত্রনায়িকা কাবেরী বলেন,‘ জন্মদিনে সবার কাছ থেকে আশীবার্দ কামনা করছি যেন ভালো থাকি সুস্থ থাকি। আর আমি সবসময়ই চাই আমাদের দেশের সিনেমা যেন আন্তর্জাতিক অঙ্গণে আরো সুনাম বয়ে নিয়ে আসতে পারে। যেহেতু মনেপ্রাণে আমি একজন সিনেমার মানুষ। তাই আমি চাই আমাদের সিনেমাপ্রেমী দর্শকেরা যেন আরো হলমুখী হয়ে সিনেমা উপভোগ করেন।’