কুমার বিশ্বজিৎ-এর সুর সঙ্গীতে গাইলেন বারী সিদ্দিকীর মেয়ে

কুমার বিশ্বজিৎ-এর সুর সঙ্গীতে গাইলেন বারী সিদ্দিকীর মেয়ে

বিনোদন রিপোর্টার : কিছুদিন আগেই শেষ হলো ‘সেরাকন্ঠ’ প্রতিযোগিতা। এই প্রতিযোগিতাতেই অতিথি বিচারক হিসেবে উপস্থিত হয়েছিলেন প্রয়াত বরেণ্য কন্ঠশিল্পী বারী সিদ্দিকী। সেখানে প্রধান চার বিচারকের একজন ছিলেন কুমার বিশ্বজিৎ। শহীদুল্লাহ ফরায়েজী’র লেখা ‘কী আগুন জ্বালাইলি’ গানটি নিয়ে কথা হয় দু’জনের মধ্যে। কয়েকদিনের মধ্যে গানটির রেকর্ডিং-এর কথা ছিলো। কিন্তু তার আগেই পরপারে চলে যান বারী সিদ্দিকী। তারপরও থেমে যাননি কুমার বিশ্বজিৎ। বারী সিদ্দিকীর পরিবারের প্রতি দায়িত্ববোধ থেকে বারী সিদ্দিকীর কন্যা এলমা সিদ্দিকীর কন্ঠে তুলে দিলেন সেই গান। গেলো ১৮ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর মগবাজারে তরুন কন্ঠশিল্পী ও সঙ্গীত পরিচালক কিশোর দাশের স্টুডিওতে গানটির রেকর্ডিং-এর কাজ সম্পন্ন হয়েছে। ভয়েজ রেকর্ডিং-এর কাজ সম্পন্ন করেন আমজাদ হোসেন বাপ্পী। রেকর্ডিং-এর সময় স্টুডিওতে উপস্থিত ছিলেন শহীদুল্লাহ ফরায়েজী, কুমার বিশ্বজিৎ ও কিশোর দাশ। এলমা’র কন্ঠে বারী সিদ্দিকীর শেষ গানটি প্রসঙ্গে কুমার বিশ্বজিৎ বলেন,‘ আমরা শিল্পীরা যেন আমাদের পরিবারের পরবর্তী প্রজন্মের পাশে আন্তরিকতা নিয়ে, দায়িত্বাবোধের স্থান থেকে পাশে দাঁড়াই এলমাকে সহযোগিতার মধ্যদিয়ে এর শূভ সূচনাটাই আমার চেষ্টা। বারী ভাইয়ের প্রতি প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করতেই এলমাকে দিয়ে  গানটি গাওয়ানো।

 কারণ দাবীর জায়গা থেকে এই গানটি বারী ভাইয়ের পরিবারেরই পাওনা। শিল্পী পরিবারের সন্তানকে প্রাথমিক সিড়ির ধাপ ঠিক করে দেয়া আমাদেরই কর্তব্য। এলমার মধ্যে বাউলিয়ানা ভাবটা আছে। চেষ্টা করলে আরো পরিণত বয়সে ভালো একজন সঙ্গীতশিল্পী হতে পারবে।’ বারী সিদ্দিকীর কন্যা এলমা সিদ্দিকী বলেন,‘ রেকর্ডিং-এর দিনই শুনলাম আব্বুর খুব ইচ্ছে ছিলো এই গানটি গাওয়ার। কিন্তু শেষতক আব্বুর গাওয়া হলোনা। আব্বুর কাছেই গানের টুকটাক শিখেছি। বাবার লেখা এবং সুরেই বাউল বাড়ি গানটি প্রথম গাই। গানটি লাইভ শোতেও গেয়েছিলাম। কী আগুন জালাইলি গানটির কথা এবং সুর সঙ্গীত আমার মন ছুঁয়ে গেছে। এই গানের সাথে সংশ্লিষ্ট সবার প্রতি আন্তরকি ভাবে কৃতজ্ঞ। বিশেষকরে বিশ্বজিৎ কাকুর প্রতি।’ আসছে পহেলা বৈশাখে বাংলা ঢোল’র ব্যানারে গানটি মিউজিক ভিডিও আকারে ইউটিউবে প্রকাশ হবে। এলমা সিদ্দিকী সম্প্রতি ল-নের একটি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গ্র্যাজুয়েসন সম্পন্ন করে ঢাকায় ফিরেছেন। এদিকে কুমার বিশ্বজিৎ তার ছেলে কুমার নিবিড়ের নির্দেশনায় প্রথম কোন মিউজিক ভিডিওর মডেল হলেন। শহীদুল্লাহ ফরায়েজীর লেখা ‘প্রশ্নই উঠেনা’ শিরোনামের এই গানটি ইউটিউবে প্রকাশিত হয়েছে। ছবি ঃ মোহসীন আহমেদ কাওছার।