‘কিংবদন্তি ক্রিকেটার থেকে এখন আর্মির হাতের পুতুল ইমরান’

‘কিংবদন্তি ক্রিকেটার থেকে এখন আর্মির হাতের পুতুল ইমরান’

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে জাতিসংঘের সাধারণ সভায় প্রায় ৫০ মিনিটের এক বক্তৃতা দিয়েছেন দেশটির সাবেক অধিনায়ক ইমরান খান। তারপর থেকেই ভারতীয় ক্রিকেটারদের মধ্যে দেখা দিয়েছে চাপা ক্ষোভ এবং অসন্তোষ। যা প্রতিনিয়তই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও গণমাধ্যমে জানান দিচ্ছেন গৌতম গম্ভীর, সৌরভ গাঙ্গুলি, ভিরেন্দর শেবাগরা।

এবার সে তালিকায় নাম লেখালেন ভারতের সাবেক ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ কাইফ। ইমরানের বক্তৃতার বিপরীতে গম্ভীর বলেছিলেন, ‘ইমরান খান হচ্ছেন পাকিস্তান সেনাবাহিনীর পাপেট।’ প্রায় একই কথা বলেছেন কাইফও।

ইমরানকে আর্মির হাতের পুতুল আখ্যা দিয়ে পাকিস্তানকে জঙ্গীদের জন্য নিরাপদ আশ্রয় হিসেবে উল্লেখ করেছেন ভারতের এ সাবেক মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে ইমরানের বক্তৃতার ওপর লেখা একটি প্রতিবেদন শেয়ার করে কাইফ এসব কথা লিখেন।

নিজের টুইটে কাইফ লিখেন, ‘হ্যাঁ (ধর্মের সঙ্গে জঙ্গীবাদের সম্পর্ক নেই)। কিন্তু জঙ্গীদের ব্যাপারে পাকিস্তানের অনেক কিছুই করার আছে। কারণ এ দেশটিই জঙ্গীদের নিরাপদের থাকার আশ্রয়। কী হতাশাজনক এক বক্তৃতা দিলেন ইমরান! কেমন অধঃপতন তার! কিংবদন্তি ক্রিকেটার থেকে এখন পাকিস্তানি আর্মি ও জঙ্গী বাহিনীর হাতের পুতুল হয়ে গেল।
এর আগে ইমরানের ভাষণ দেখে চুপ থাকতে পারেননি ভারতের সাবেক অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলিও। জাতিসংঘে দেয়া ভাষণে ইমরান খান ভারত এবং কাশ্মীর নিয়ে যে কথা বলেছেন, সেগুলোকে ‘আবর্জনা’ বলে অভিহিত করেন সৌরভ। একইসঙ্গে জানান, ‘পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটার ইমরান খানকে মানুষ চেনে; কিন্তু এই ইমরানকে বিশ্ব চেনে না। এই ইমরান খানকে আমরা চিনি না।’


পাকিস্তান প্রধানমন্ত্রীর সমালোচনা করে শেবাগ যে টুইট করেছেন, প্রত্যুত্তরে সৌরভ টুইটারে লেখেন, ‘বীরু, ভিডিওটি দেখে আমি হতবাক। এমন ভাষণ না শোনাই শ্রেয়। সারা বিশ্বজুড়ে যখন শান্তি প্রয়োজন, আর দেশ হিসেবে পাকিস্তানে যখন শান্তির বার্তা ছড়িয়ে পড়া সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন, সে সময় ওই দেশটির প্রধানমন্ত্রী হিসেবে এমন নোংরা বুলি আওড়াচ্ছেন ইমরান খান! সাবেক এই ক্রিকেটারকে বিশ্ব চেনে না।’