কামালের সঙ্গে যাওয়ার পর বিএনপি জোটে ভাঙন

কামালের সঙ্গে যাওয়ার পর বিএনপি জোটে ভাঙন

ওয়ান-ইলেভেনের কুশীলবদের সঙ্গে বিএনপির সম্পর্ক গড়ার অভিযোগ তুলে ২০ দলীয় জোট ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশ ন্যাপ ও ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এনডিপি)।

২০ দলীয় জোটের বাইরে কামাল হোসেন নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে বিএনপি যুক্ত হওয়ার তিন দিনের মাথায় এই ঘোষণা দিল দল দুটি।

বিএনপির সঙ্গ ছাড়ার সিদ্ধান্ত জানিয়ে মঙ্গলবার যৌথ সংবাদ সম্মেলনে আসেন বাংলাদেশ ন্যাপের চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি ও এনডিপির চেয়ারম্যান খোন্দকার গোলাম মর্তুজা।

 প্রয়াত রাজনীতিক মশিউর রহমান যাদু মিয়ার নাতি জেবেল গানি জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে বিএনপি যোগ দেওয়ায় হতাশা প্রকাশ করে বলেন, “ঐক্যফ্রন্ট গঠন নিয়ে যাদের অগ্রণী ভূমিকা দেখা যাচ্ছে, তাদের প্রায় সবাই ১/১১ এর অরাজনৈতিক সরকার প্রতিষ্ঠায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন। তাদের অনেকেই মাইনাস টু ফর্মুলা বাস্তবায়নের সঙ্গে জড়িত ছিলেন।

“এমনকি বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া এখন যেই মামলায় কারাগারে রয়েছেন, সে মামলা দায়েরের নেপথ্য নায়করা আজ বিএনপির পাশে।”

একাদশ সংসদ নির্বাচনের কয়েক মাস আগে গণফোরাম সভাপতি কামালের নেতৃত্বে গঠিত জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে বিএনপি ছাড়াও রয়েছে আ স ম আবদুল রবের জেএসডি ও মাহমুদুর রহমান মান্নার নাগরিক ঐক্য।

এই জোট গঠনের উদ্যোগে সক্রিয় রয়েছেন সেনা নিয়ন্ত্রিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা মইনুল হোসেন। এই জোট গঠনে সক্রিয় ডাকসুর সাবেক ভিপি সুলতান মো. মনসুর আহমেদও জরুরি অবস্থার সময় সংস্কাপন্থি হিসেবে চিহ্নিত হয়ে মান্নার মতো আওয়ামী লীগে স্থান হারিয়েছিলেন।

আওয়ামী লীগ নেতারা বলে আসছেন, কামাল হোসেনের নেতৃত্বে নতুন এই জোটের আত্মপ্রকাশের উদ্দেশ্য ষড়যন্ত্র করা।

গানি বলেন, “আমাদের আতঙ্ক এই কারণে যে, শুধু ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য আমরা কি আরেকটি অগণতান্ত্রিক অশুভ শক্তিকে ক্ষমতায় আনার ষড়যন্ত্রের অংশ হতে যাচ্ছি “