করোনা রোগীদের সামলাতে হিমশিম খাচ্ছে স্পেন-ইতালি

করোনা রোগীদের সামলাতে হিমশিম খাচ্ছে স্পেন-ইতালি

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসে মৃত্যুর মিছিল কোনো ভাবেই থামানো যাচ্ছে। কোন চেষ্টা কাজে আসছে না। হিমশিম খাচ্ছে ইতালি ও স্পেনের হাসপাতালগুলো।

এদিকে, যুক্তরাষ্ট্রে সাড়ে ৯০০ মানুষের প্রাণহানি আর ৭০ হাজার মানুষ আক্রান্তের পর, ভাইরাস পরীক্ষায় অপ্রতুলতার অভিযোগ উঠেছে। ভাইরাস মোকাবিলায় ২ লাখ কোটি ডলারের বিশেষ সহায়তা প্যাকেজ পাশ করেছে, মার্কিন সিনেট। 

ভারতসহ বিভিন্ন দেশে চলছে লকডাউন। তবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, শুধু লকডাউন দিয়ে ভাইরাসটি নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হবে না।

মাদ্রিদের সেভেরো ওচোয়া হাসপাতাল। ৮০ বেডের হাসপাতাল হলেও, কোভিড-নাইনটিন আক্রান্ত ৩০০ এর বেশি রোগী ভর্তি এখানে। প্রতিদিনই আক্রান্ত বেড়ে চলায় তিল ধারণের ঠাঁই নেই স্পেনের অনেক হাসপাতালে। প্রাণহানিতে চীনকেও ছাড়িয়ে গেছে দেশটি।

সরকার বলছে ৩ লাখ টেস্টিং কীট আছে। অথচ পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য আমাদের কাছে পর্যাপ্ত কীট নেই। সবাই নিজ পরিবার নিয়ে আতঙ্কিত। যখন কারো স্বজন আক্রান্ত হচ্ছেন, পরিবারের সদস্যরা তাকে এড়িয়ে চলছেন।

অসুস্থদের সারিয়ে তুলতে প্রাণন্তকর চেষ্টা চলছে ইতালির হাসপাতালগুলোতে। তৈরি হচ্ছে নতুন নতুন আইসিইউ ইউনিট। ভাইরাসে সব বয়সী মানুষই আক্রান্ত হচ্ছেন।  এটা খুবই আগ্রাসী, তাই সবাইকে খু্ব সচেতন থাকতে হচ্ছে। এটা একটা ভুল ধারণা যে এতে কেবল বয়স্করা আক্রান্ত হবেন।

ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে প্রথম একজনের প্রাণ গেছে। ২১ দিনের লকডাউন শুরুর দিন নিয়ম না মেনে ঘরের বাইরে বের হওয়ায় ভারতের বিভিন্ন স্থানে সাজা ভোগ করতে হয় অনেককে। ২০০ এর বেশি এফআইআর দায়ের হয়েছে ভারতজুড়ে। 

দিল্লির কমিউনিটি ক্লিনিকে চিকিৎসকের করোনা ধরা পড়েছে। এ খবরে তার কাছে চিকিৎসা নেয়া ৮শ রোগীকে পাঠানো হয়েছে কোয়ারেন্টিনে।

যুক্তরাষ্ট্রে একদিনেই রেকর্ড ১০ হাজার মানুষ আক্রান্ত হয়েছে করোনায়। কেবল নিউইয়র্কে ২ শতাধিক মানুষের প্রাণ গেছে করোনায় শহরে শহরে ভাইরাস পরীক্ষা এমন দীর্ঘ সারি। ভাইরাস মোকাবেলায় ২ ট্রিলিয়ন ডলারের বিশেষ সহায়তা প্যাকেজ পাশ করেছে মার্কিন সিনেট। কোভিড-নাইনটিনের পরীক্ষার অপ্রতুলতার অভিযোগ উঠেছে দেশটিতে।