করোনা ভাইরাস ঠেকাতে ব্যাপক প্রস্তুতি ভারতের

করোনা ভাইরাস ঠেকাতে ব্যাপক প্রস্তুতি ভারতের

ভারতের কেউ এখনও করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হননি। কিন্তু এই প্রাণঘাতী ভাইরাস ঠেকাতে ব্যাপক প্রস্তুতি নিচ্ছে ভারত। খবর জার্মানির গণমাধ্যম ডয়চে ভেলের।
চীনের উহানে ভারতীয় শিক্ষিকা প্রীতি মাহেশ্বরী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। দিল্লির মেয়ে প্রীতি উহানে শেনজেন ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের শিক্ষিকা। তিনি হলেন এই ভাইরাসে আক্রান্ত প্রথম বিদেশি।
গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় এই ভারতীয় শিক্ষিকাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। প্রীতি ও উহানে থাকা ৫০০ ভারতীয় শিক্ষার্থীকে নিয়ে বেশ চিন্তিত ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।
কলকাতা, মুম্বাই, দিল্লি, চেন্নাই, বেঙ্গালুরু, হায়দরাবাদ ও কোচিতে থার্মাল স্ক্রিনিং চালু করা হয়েছে। এই ভাইরাসে কেউ আক্রান্ত হলে সঙ্গে সঙ্গে তাকে পাশের হাসপাতালে ভর্তি হতে বলা হয়েছে।
স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে লেখা চিঠিতে ৩১ ডিসেম্বর থেকে যেসব উহানগামীকে ভিসা দেয়া হয়েছে, তাদের তালিকা দিতে বলা হয়েছে।
জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক ও স্বাস্থ্য বিষয়ক সংবাদ বিশেষজ্ঞ সুরেশ উপাধ্যায় গণমাধ্যমটিকে জানান, চীন ও তার প্রতিবেশী দেশগুলোতে ভ্রমণকারীদের জন্য সতর্কতা জারি করা হয়েছে।
তিনি জানান, কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় একেবারে যুদ্ধকালীন পরিস্থিতির মতো সতর্কতামূলক পদক্ষেপ নিয়েছে। একটি জয়েন্ট মনিটরিং গ্রুপ তৈরি করা হয়েছে। তারা ইতোমধ্যে দুইবার বৈঠক করেছেন।
চীনে এ পর্যন্ত ছয়জন মারা গেছেন। উহান থেকে এই ভাইরাস বেইজিং ও  সাংহাইতে ছড়িয়েছে। জাপান, থাইল্যান্ড ও দক্ষিণ কোরিয়াতেও ঢুকে পড়েছে করোনা। তাই এই ব্যাপক প্রস্তুতি ভারতের।