ইলিশ উৎপাদনে সাফল্য

ইলিশ উৎপাদনে সাফল্য

মাছের রাজা ইলিশ। বাংলাদেশের জাতীয় মাছ ও ইলিশ। যদি বলা হয় পৃথিবীর সুস্বাদু মাছ কোনটি ? সে প্রশ্নেরও সহজ জবাব ইলিশ। আর পদ্মার ইলিশ তো ইলিশের রাজ রানি। কোনো তুলনাই হয় না সে ইলিশের। পৃথিবীর মোট ইলিশের ৬৫ শতাংশ উৎপাদিত হয় বাংলাদেশে। দুনিয়ার সব দেশে ইলিশের উৎপাদন কমলেও একমাত্র বাংলাদেশে এ মাছের উৎপাদন বাড়ছে। মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ মন্ত্রী নারায়ন চন্দ্র চন্দ বলেছেন, চলতি বছর ইলিশের উৎপাদন পাঁচ লাখ টন ছাড়িয়ে যাবে। দেশে উৎপাদিত মাছের প্রায় ১২ শতাংশ আসে শুধু ইলিশ থেকে। জিডিপিতে ইলিশের অবদান এক শতাংশের বেশি। কাজেই একক প্রজাতি হিসাবে ইলিশের অবদান সর্বোচ্চ। ফলে মাত্র নয় বছরের ব্যবধানে এ মাছের উৎপাদন বেড়েছে প্রায় ৬৬ শতাংশ।

এরই মধ্যে পেটেন্ট, ডিজাইন ও ট্রেডমার্ক অধিদপ্তর প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও আইনানুগ কার্যক্রম শেষে জাতীয় মাছ ইলিশের ভৌগলিক নিবন্ধন (জিআই সনদ) করেছে। ফলে বিশেষ গুণগত মান সম্পন্ন ইলিশ বাজারজাত করণের মাধ্যমে দেশ-বিদেশে বাণিজ্যিক সহ অন্যান্য সুবিধা পাওয়া যাবে। এ ছাড়া সরকার স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক বাজারে চাহিদার পরিপ্রেক্ষিতে ইলিশের স্যুপ, নুডলস ও পাউডার তৈরির প্রযুক্তি আবিষ্কার করে এরই মধ্যে তা বাজারজাত শুরু করেছে। তারপরও স্বীকার করতে হবে ইলিশ এখনো মহার্ঘ্য। সাধারণ মানুষের ক্রয় ক্ষমতার বাইরে চলে যাচ্ছে সবার প্রিয় এই মাছ। এ মাছকে সবার নাগালের মধ্যে আনতে হবে। বাংলাদেশের জাতীয় মাছের রমরমা অবস্থা সৃষ্টিতে সরকার সহ পুরো জাতিকে সচেতন হতে হবে।