ইন্দোনেশিয়ায় এক্সপোতে অ্যাওয়ার্ড পেল চট্টগ্রামের প্রতিষ্ঠান

ইন্দোনেশিয়ায় এক্সপোতে অ্যাওয়ার্ড পেল চট্টগ্রামের প্রতিষ্ঠান

ইন্দোনেশিয়ায় চলছে দেশটির সবচেয়ে বড় রফতানি পণ্যপ্রদর্শনী ‘৩৪তম ট্রেড এক্সপো ইন্দোনেশিয়া-২০১৯।’ এতে বুধবার প্রথম দিনে আমদানি-রফতানিতে বিশেষ অবদানের জন্য বাংলাদেশসহ ৫০টি দেশের ব্যবসায়ী ও প্রতিষ্ঠানকে অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়। দেশটির পণ্য আমদানির জন্য বাংলাদেশ থেকে অ্যাওয়ার্ড পেয়েছে চট্টগ্রামের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ‘ইসলাম মোটর্স’।

বুধবার (১৬ অক্টোবর) সকালে দেশটির বাণিজ্য নগরীখ্যাত বিএসডি সিটির ইন্দোনেশিয়া কনভেনশন এক্সিবিশন হলে ৩৪তম ট্রেড এক্সপোর উদ্বোধন করেন দেশটির উপ-রাস্ট্রপতি ইউসুফ কালা। ট্রেড এক্সপোর আয়োজক দেশটির বাণিজ্য মন্ত্রণালয়।

ADVERTISEMENT
‘ইসলাম মোটর্স’র পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ইন্দোনেশিয়ার উপ-রাষ্ট্রপতি সবার হাতে অ্যাওয়ার্ড তুলে দেন। অ্যাওয়ার্ড দেয়া হয় ইন্দোনেশিয়ার র্শীর্ষ পণ্য উৎপাদকদেরও।

‘মুভিং ফরোয়ার্ড টু সার্ভ দ্য ওয়ার্ল্ড’ এই শিরোনামে আয়োজিত প্রদর্শনীতে বাংলাদেশ, ভারত, আমেরিকা, ইউরোপ, আফ্রিকা, জাপান, চীন, অস্ট্রেলিয়াসহ শতাধিক দেশের ব্যবসায়ী ও তাদের প্রতিনিধিরা অংশ নিচ্ছেন। পাঁচদিনের এ প্রদর্শনীতে দেশটির প্রায় ১২ শতাধিক পণ্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান তাদের পণ্য প্রদর্শন করছে। বিভিন্ন দেশের ব্যবসায়ীরা পণ্য দেখার পাশাপাশি উৎপাদকদের সঙ্গে মিটিং করছেন। প্রদর্শনীর অংশ হিসেবে বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত ও ব্যবসায়ীরা অংশ নেবেন বিভিন্ন সেমিনারে।

ইন্দোনেশিয়া কয়লা, পাম অয়েল, পেট্রোলিয়াম গ্যাস, ক্রড অয়েল, রাবারসহ বিভিন্ন পণ্যের বড় রফতানিকারক দেশ। বিশ্ব-বাজারে নিজেদের উৎপাদিত পণ্যের বাজার আরও প্রসারিত, রফতানির ক্ষেত্রে ইতিবাচক প্রবদ্ধি ধরে রাখতে প্রতিবছর এ আয়োজন করে দেশটি।

ট্রেড এক্সপোর বর্ণাঢ্য উদ্বোধনীতে দক্ষিণ কোরিয়ার বাণিজ্যমন্ত্রী, ইন্দোনেশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী, ইন্দোনেশিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত অবসরপ্রাপ্ত মেজর জেনারেল আজমল কবির, বাংলাদেশে নিযুক্ত ইন্দোনেশিয়ার রাষ্ট্রদূত রিনা পি সোয়েমারনোসহ বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।


আগামী ২০ অক্টোবর শেষ হবে এই ট্রেড এক্সপো।