আড়াইহাজারে গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যা

আড়াইহাজারে গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যা

 নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার বিশনন্দী ইউনিয়নের কড়ইতলা গ্রামে কুলসুম আক্তার (১৮) নামে এক গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যা অভিযোগ উঠেছে।

সোমবার (১৪ অক্টোবর) সকালে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। এ ঘটনায় দু’জনকে আটক করা হয়েছে।

নিহত সালেহা মানিকপুর গ্রামের আব্দুল হকের মেয়ে। ঘটনার পর থেকে স্বামী শাহ আলম পলাতক রয়েছেন।

নিহতের বড় ভাই শেখ ফরিদ জানান, বিয়ের সময় নগদ এক লাখ টাকা, ফার্নিচারসহ প্রায় দু’লাখ টাকার মালামাল দেওয়া হলেও বোনকে তার স্বামী শাহ আলম নির্যাতন করতো অনেক। সকালে বোনের শ্বশুরবাড়ি থেকে খবর আসে বোন অসুস্থ হওয়ায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়েছে। হাসপাতালে গিয়ে দেখি বোনের মরদেহ পড়ে রয়েছে।

তিনি আরও জানান, প্রায় দেড় বছর আগে মানিকপুর গ্রামের আব্দুল জলিলের ছেলে শাহ আলমের কুলসুম আক্তারের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই পারিবারিকভাবে বিবাদ লেগেই থাকতো তার সঙ্গে শ্বশুরবাড়ির। তাদের একটি ছেলে সন্তান আছে।

আড়াইহাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম জানান, জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ ইতোমধ্যে শ্বশুর আব্দুল জলিল মিয়া এবং শাশুড়ি কুলসুম বেগমকে আটক করেছে। ধারণা করা হচ্ছে স্বামী শাহ আলম রোববার (১৩ অক্টোবর) রাতের কোনো এক সময় স্ত্রীকে লাঠি দিয়ে এলোপাথাড়ি পিটিয়ে হত্যা করে পালিয়ে যান।

এ ব্যাপারে আড়াইহাজার থানায় একটি হত্যা মামলা দায়েয়ের প্রস্তুতি চলছে। পুলিশ নিহতের স্বামী শাহ আলমকে গ্রেফতারে কাজ করছে বলেও জানান পুলিশের ওই কর্মকর্তা।