আরো তিনদিন থাকবে শীত

আরো তিনদিন থাকবে শীত

তীব্র শীতে কাঁপছে রাজধানীসহ সারাদেশ। আবহাওয়া অফিস বলছে, শীতের তীব্রতা আরো ৭২ ঘণ্টা থাকবে। যদিও থাকছে না শৈত্যপ্রবাহ। শীতে বিপাকে পড়েছেন খেটে খাওয়া সাধারণ মানুষ।
উপমহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ, হিমালয়ের পাদদেশীয় পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান এবং মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করায় শীতের তীব্রতা বেড়েছে। শৈত্যপ্রবাহ না থাকলেও শীতের তীব্রতা আরো ৭২ ঘণ্টা থাকতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস। ঢাকায় শনিবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১২ দশমিক এক ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর দেশে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ফরিদপুরে ১০ দশমিক এক ডিগ্রি সেলসিয়াস।
চুয়াডাঙ্গায় গত দুদিন ধরে শৈত্যপ্রবাহ থাকায় জেলায় দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে।
শীতে সবচেয়ে বেশি কষ্ট হচ্ছে উত্তরাঞ্চলের মানুষের। নওগাঁয় দিনের তাপমাত্রা কিছুটা সহনীয় হলেও রাতে ভয়াবহ রূপ নিচ্ছে। গত দুদিনের চেয়ে কুড়িগ্রামে শীতের তীব্রতা কিছুটা কমলেও দুর্ভোগ কমছে না সাধারণ মানুষের।
অপরদিকে ঘন কুয়াশার কারণে সূর্য না ওঠায় কষ্টে দিন কাটছে নড়াইলবাসী। কনকনে হিমেল হাওয়া আর হাড় কাঁপানো শীতে ঘর থেকে বের হতে পারছেন না, লালমনিরহাটের নিম্নআয়ের মানুষ।
দিনাজপুরের হিলি সীমান্তেও জেঁকে বসেছে শীত। বিপাকে আছে শিশু ও বয়স্করা। মেহেরপুরে খড়-কুটো জ্বালিয়ে শীত নিবারণ করছেন ছিন্নমূল ও হতদরিদ্র মানুষ। ঘন কুয়াশার কারণে ব্যাহত হচ্ছে যান চলাচল।