আমিরাতে গালি দিলেই কারাদণ্ড, জরিমানা

আমিরাতে গালি দিলেই কারাদণ্ড, জরিমানা

করতোয়া ডেস্ক : সংযুক্ত আরব আমিরাতে এবার খারাপ শব্দ উচ্চারণ করে কাউকে গালি দিলে কারাগারে ঢুকতে হতে পারে। তাছাড়া গুণতে হতে পারে বেশ বড় অংকের জরিমানা। কেননা গত দুই মাসে দেশটিতে অন্তত তিনজন ব্যক্তি গালি দেয়ার দায়ে কারাগারে যেতে গিয়েছেন নয়তো আদালতের মুখোমুখি হতে হয়েছে কিংবা জরিমানা দিয়ে খালাশ পেয়েছেন। গত অক্টোবরে এক ব্যক্তি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম হোয়াটস অ্যাপে এক নারীকে ‘হাবলা’ বলায় তার নামে মামলা হয়। আর এ কারণে জরিমানা গুণতে হয় ২০ হাজার দিরহাম। তাছাড়া চলতি মাসের শুরুতে শারজায় একটি ফুটবল ম্যাচ চলাকালীন এক ব্যক্তি তার সহকর্মীকে ‘নগণ্য’ বলায় এখনো তার বিরুদ্ধে মামলা চলছে। অবশ্য মামলার অভিযুক্তরা বলছেন, নিছক মজা করার জন্য তারা এ ধরনের শব্দ লিখেছেন। কিন্তু যাদের কাছে এসব বার্তা পাঠানো হয়; তারা বিষয়টিকে গুরুতরভাবে নিয়েছেন। আমিরাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কারো কাছে আপত্তিকর কিছু পাঠানো হলে সেটাকে আইনত সাইবার ক্রাইম হিসেবে বিবেচনা করা হয়। এই আইনে অভিযুক্তরা আড়াই থেকে ১০ লাখ আমিরাতি দিরহামের সাজা অথবা কারাদণ্ডে দণ্ডিত হতে পারেন। আল ওয়াসেল নামের একটি আন্তর্জাতিক আইনি সংস্থার আইনজীবী মোহাম্মদ আজব বলেন, কাউকে হেয়প্রতিপন্ন করার ক্ষেত্রে ফৌজদারি আইনে শাস্তি হবে কি না তা নির্ভর করে সেটা মুখোমুখি বা প্রত্যক্ষভাবে হয়েছে নাকি অনরাইন অথবা সামাজিক মাধ্যমে হয়েছে।আইনজীবী মোহাম্মদ আজব আরও বলেন, সরাসরি কাউকে হেয়প্রতিপন্ন করা হলে সেটা রাষ্ট্রীয় ফৌজদারি আইন অনুযায়ী শাস্তিযোগ্য অপরাধ। কিন্তু যখন সেটা অনলাইন কিংবা সামাজিক মাধ্যমে হবে তখন তা সাইবার ক্রাইম বিষয়ক আইনের আওতায় চলে যাবে। যেখানে কঠোর শাস্তি ও জরিমানার ব্যবস্থা আছে।