আমরাই প্রথম দেশের নামের সাথে ডিজিটাল শব্দ ব্যবহার শুরু করি ---- - ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী

আমরাই প্রথম দেশের নামের সাথে  ডিজিটাল শব্দ ব্যবহার শুরু করি ---- - ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী

রাজশাহী প্রতিনিধি: ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে নিয়োজিত মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, প্রযুক্তি সর্বদা পরিবর্তনশীল। তাই কর্মজীবন ও পরিবর্তনের সাথে খাপ খাইয়ে চলতে না পারলে প্রতিযোগিতায় টিকে থাকা অসম্ভব। সামনের দিনগুলো শুধু ইন্টারনেট ও ব্রাউজিং করার দিন নয়, আধুনিক প্রযুক্তির যুগ। আমরাই প্রথম দেশের নামের সাথে ডিজিটাল শব্দ ব্যবহার শুরু করি। তাই ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে শুধু গতানুগতিক প্রশিক্ষণ বা শিক্ষা গ্রহণ করলেই হবে না, অর্জিত জ্ঞানকে পেশাগত জীবনে যথাযথভাবে কাজে লাগাতে হবে। গতকাল শুক্রবার রাজশাহীতে পোস্টাল একাডেমী, রাজশাহী কতৃক আয়োজিত বিভিন্ন ক্যাডার সার্ভিসের কর্মকর্তাদের ৬৮তম ফাউন্ডেশন কোর্সের সমাপনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন।

 ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব অশোক কুমার বিশ^াসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে জেলাা প্রশাসক হামিদুল হক, বিপিএটিসি এর অতিরিক সচিব মো. মুনির হোসেন বক্তৃতা করেন।
মন্ত্রী বলেন, যে বাংলাদেশকে তলাবিহীন ঝুড়ি হিসেবে অবজ্ঞা করা হয়েছিল, সে বাংলাদেশ এখন প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে অন্যান্য দেশের কাছে ঈর্ষনীয় । ১৯৭৫ থেকে ১৯৯৬ সাল ছিল বাংলাদেশকে পাকিস্তান বানানোর সময়।  বাংলাদেশের বর্তমান যে অর্জন তা প্রমাণ করে পাকিস্তান থেকে আলাদা হওয়া বাংলাদেশের জন্য এক পরম পাওয়া। বাংলাদেশ আজ পাকিস্তানের চেয়ে অনেক এগিয়ে গেছে। এ ধারা অব্যাহত রেখে তরুণ প্রজন্মকে প্রজাতন্ত্রের সেবায় নিয়োজিত হতে হবে। পরে মন্ত্রী প্রশিক্ষণার্থীদের হাতে সনদ তুলে দেন।

এরপর মন্ত্রী বাংলাদেশ ডাক বিভাগ, বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন্স লিমিটেড এবং টেলিটক বাংলাদেশ লিমিটেড এর বিভাগীয় ও জেলা পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করেন। সভায় বাংলাদেশ ডাক বিভাগ, বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেন্স লিমিটেড এবং টেলিটক বাংলাদেশ এর বিভাগীয় ও জেলা পর্যায়ের কর্মকর্তাদের কাছ থেকে  বিভিন্ন সমস্যার কথা শুনেন এবং তা সমাধানের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে হবে জানান।মতবিনিময় সভায় ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব, রাজশাহীর সহকারী জেলা প্রশাসকসহ উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন। বিকেলে মন্ত্রী রাজশাহীস্থ সুলতানাবাদ নিউমার্কেটে টেলিটক কাস্টমার কেয়ার উদ্বোধন করেন।