আমরা খেলার জন্য খেলতে আসিনি

আমরা খেলার জন্য খেলতে আসিনি

স্পোর্টস রিপোর্টার : চলমান ত্রিদেশীয় সিরিজে টানা দ্ইু বোনাস পয়েন্টের জয়ে দুই ম্যাচ হাতে রেখেই ফাইনাল নিশ্চিত করেছে স্বাগতিক বাংলাদেশ। বাকি দু’দল দল শ্রীলঙ্কা ও জিম্বাবুয়ে একটি করে জয় পাওয়ায় তাদের ফাইনাল এখনও অনিশ্চিত। শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে খেলতে দু’দলকেই বাংলাদেশের বিপক্ষে জিততে হবে। তা না হলে তাকিয়ে থাকতে হবে রান রেটের দিকে। এই ক্ষেত্রে অবশ্য এগিয়ে জিম্বাবুয়েই। তিন ম্যাচের এক জয় ও দুই হারে ৪ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দুই নাম্বারে কোচ হিথ স্ট্রিকের শিষ্যরা। সমান সংখ্যক ম্যাচে সমান পয়েন্টে হাথুরুর শ্রীলঙ্কা অবস্থান করছে টেবিলের তিনে। এমন কঠিন পরিস্থিতিতে আজ মঙ্গলবার বাংলাদেশের বিপক্ষে নিজেদের চতুর্থ ম্যাচটিকে মৌলিক বলে আখ্যায়িত করলেন দলের মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান পিটার মুর। ফাইনালের মিশনে জয়ের বিকল্প না থাকায় টাইগারদের বিপক্ষে এই ম্যাচটিতে বেশ আত্মবিশ্বাসীও তিনি। অবশ্যই আমারা টুর্নামেন্টের ফাইনালকে টার্গেট করে এসেছি। আমরা এখানে খেলার জন্য খেলতে আসিনি।

 কালকের ম্যাচটি আমাদের জন্য মৌলিক হয়ে উঠেছে। ফাইনালে যেতে ম্যাচটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ম্যাচটিতে আমরা সবাই ভালো পারফরম্যান্স করতে আত্মবিশ্বাসী। আর এই ক্ষেত্রে পিটারকে প্রেরণা যোগাচ্ছে ১৭ জানুয়ারি শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে পাওয়া জয়টি, প্রথম ম্যাচের অভিজ্ঞতাটি আমাদের ভালো ছিল না। তবে পিচ ও কন্ডিশনের সাথে অভ্যস্ত হওয়ার পর দ্বিতীয় ম্যাচে আমরা ভালো করেছি। আর তৃতীয় ম্যাচে উইকেটে অনেক বড় ভূমিকা পালন করেছে। ম্যাচের কিছু ক্রশিয়াল মুহূর্ত আমাদের হারিয়ে দিয়েছে। তবে দ্বিতীয় ম্যাচে কিন্তু আমরা ঠিকই আমাদের সামর্থের প্রমাণ দিয়েছি। প্রথম ম্যাচের ওই বাজে পারফরম্যান্স আর আমরা মনে করতে চাইছি না। বরং দ্বিতীয় ম্যাচের সফলতা স্মরণ করেই কালকের ম্যাচটি খেলবো।

 গতকাল সোমবার শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের সম্মেলন কক্ষে ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে মুর একথা বললেন ঠিকই তবে ঘরের মাঠে শক্তিশালী বাংলাদেশকে করলেন সমীহও। কিন্তু মহাগুরুত্বপূর্ণ এই ম্যাচ জয়ে নিজেদের ওপরে রাখছেন অগাধ আস্থা। তিনি আরও বলেন, একটি বিষয় সম্পর্কে আমরা সবাই অবগত আছি যে দেশের মাটিতে ওরা খুবই শক্তিশালি। সম্প্রতি দেশের বাইরেও ভালো করছে। আমরা বাংলাদেশের শক্তির জায়গাটি ভালো করেই জানি। আমরা এও জানি রুবেল ও মোস্তাফিজ ডেথ ওভারে শক্তিশালী। আমারা তাদের প্রতিহত করতে চেষ্টা করবো। সেই লক্ষ্যে আমরা অনুশীলনও করেছি। অতীত থেকে আমরা গুরুত্বপূর্ণ অনেক কিছুই শিখেছি। আমার মনে হয় আমরা আমাদের সঠিকভাবে মেলে ধরতে কাজ করতে পারবো।